দ্যা বোট দ্যাট রকড

উদ্ভ্রান্ত পথিক এর ছবি
লিখেছেন উদ্ভ্রান্ত পথিক [অতিথি] (তারিখ: মঙ্গল, ১৩/১০/২০০৯ - ১২:০৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর ধুমায় মুভি দেখা শুরু করলাম। প্রতিদিন কমপক্ষে একটা করে মুভি নামাই। তো সবচেয়ে বড় সমস্যা মুভি বাছাই করা। বাসায় আছে ৩০০+ ডিভিডি। পুরানো ভাল অনেক ছবি দেখে ফেলছি। আবার একেবারে নতুন সব ছবিও দেখতে পারি না। কারণ ডিভিডি আসে নাই। না আসলে টরেন্টেও ভাল প্রিন্ট পাওয়া যাবে না। তাই কমপক্ষে ৬ মাস আগে মুক্তি পাওয়া মুভি দেখার চেষ্টা করি তাইলে ভালা প্রিন্ট পাওয়া যায়! যাই হোক সম্প্রতি দেখা একটা ভাল ছবি দ্যা বোট দ্যাট রকড

auto

ছবিটার কাহিনী ষাট দশকের উত্তর সাগরে অবস্থিত একটি বেতার কেন্দ্র "পাইরেট রেডিও" নিয়ে যারা একটা পরিত্যক্ত জাহাজ থেকে সম্প্রচার করে।এরা সারাদিন ষাট দশকের পপ রক গান বাজাতো।যা সেই সময়ের ব্রিটেনে ছিলো অচিন্তনীয়।কাহিনী এই বেতার কেন্দ্রের বোহেমিয়ান ডিজ়েদের জীবন নিয়ে।ছবিটির যেইদিক সবচেয়ে অসাধারন লেগেছে সেটি হল ষাট দশকের পপ রক গানগুলো উপস্থাপনা।বিভিন্ন অংশে গানগুলো এমন পরিবেশন করা হয়েছে যা পরিস্থিতির সাথে দারুন ভাবে খাপ খেয়েছে।গানগুলো পরে টরেন্ট থেকে নামিয়েছিলাম কিন্তু আলদাভাবে শোনায় ততোটা ভাল লাগে নাই।

ছবিতে আমার চেনা অভিনেতাদের মধ্যে আছেন বিল নাঈ, ফিলিপ সেইমুর হফম্যান।

পরিশেষে বলবো যদি কেউ ব্রিটিশ কমেডি এবং ষাটের দশকের পপ রক গানের ভক্ত হন তাইলে এই ছবি দেখা আবশ্যিক।


মন্তব্য

সুহান রিজওয়ান এর ছবি

ভাই, রিভিউ একটু ছোট দিসেন। পইড়ে আরাম পাইলাম না। ... কাহিনী আরেকটু বললে ক্ষেতি কি সিলো ??
... যাই হোক, ভালা হইলে আপনার কাছ থেইকা ধার লমু।

---------------------------------------------------------------------------

মধ্যরাতের কী-বোর্ড চালক

উদ্ভ্রান্ত পথিক এর ছবি

-ইয়ে আমি না আসলে কাহিনী রসায় লেখতে পারি না :-$ তুমি কি সুন্দর কইরা আই এ্যাম স্যামের রিভিও লেখলা। ওইটা পইড়া আমার আসলে দিতে ইচ্ছা করতেছিলো না লেখাটা খাইছে
-ক্লাস খুলতাছে যেকোন সময় নিয়ো। এই ছুটিতে বেশ কয়েকটা দারুন ছবি দেখছি দেঁতো হাসি

---------------------
আমার ফ্লিকার

---------------------
আমার ফ্লিকার

গৌতম এর ছবি

মানুষ যে ক্যাম্নে সিনেমা দেখে! আমি তো এক বসায় কোনো সিনেমাই শেষ করতে পারি না। মন খারাপ

.............................................
আজকে ভোরের আলোয় উজ্জ্বল
এই জীবনের পদ্মপাতার জল - জীবনানন্দ দাশ

::: http://www.bdeduarticle.com
::: http://www.facebook.com/profile.php?id=614262553/

.............................................
আজকে ভোরের আলোয় উজ্জ্বল
এই জীবনের পদ্মপাতার জল - জীবনানন্দ দাশ

খেকশিয়াল এর ছবি

ব্রিটিশ কমেডির তুলনা নাই
বিল নাঈ, ফিলিপ সেইমুর হফম্যান সেইরকম অভিনেতা, বিশেষ কইরা বিল নাঈয়ের আমি পাঙ্খা। মুভিটার নাম শুনসিলাম.. আর দেখা হয় নাই, সময় করলে দেইখা ফালামু

------------------------------
'..দ্রিমুই য্রখ্রন ত্রখ্রন স্রবট্রাত্রেই দ্রিমু!'

-----------------------------------------------
'..দ্রিমুই য্রখ্রন ত্রখ্রন স্রবট্রাত্রেই দ্রিমু!'

সাফি এর ছবি

ব্রিটিশ কমেডি বুঝিনা তাই ভালাও পাইনা

এস, কে, নির্ভানা এর ছবি

ছবির বা মুভির সমালোচনা ভাল লগলো । ছবিটা দেখার ইচ্ছা রইলো ।

নির্ভানা

মূলত পাঠক এর ছবি

ভালো তবে বড়োই ছোটো!

মেহদী হাসান খান এর ছবি

শুরু না হতেই শেষ হয়ে গেল ইয়ে, মানে...

পান্থ রহমান রেজা এর ছবি

দেখমুনে।
.........................................................................................

আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ ব'সে অপেক্ষা করার সময় আছে।

রায়হান আবীর এর ছবি

মেয়ে নাই নাকি? দেঁতো হাসি


পুচ্ছে বেঁধেছি গুচ্ছ রজনীগন্ধা

উদ্ভ্রান্ত পথিক এর ছবি

আরে সব কইয়া দিলে মুভির মজা কই চোখ টিপি
জাহাজে এক্টাই মেয়ে তই সেইটা হোমো!

---------------------
আমার ফ্লিকার

ধুসর গোধূলি এর ছবি

আমি ব্লু-রে আর হাই-ডেফিনিশন ম্যুভির কালেকশন বানাইতেছি। বয়সকালে বিশাল স্ক্রীনে দেখবো বলে। সমস্যা একটাই, পিসির হার্ডড্রাইভগুলো খুব তাড়াতাড়িই ভরে যাচ্ছে। কালেকশনটা ঠিকমতো বাড়তে পারতেছে না। কেউ একজন এক ট্যারার একটা হার্ডডিস্ক গিফট করেন আমারে। দ্য বোট দ্যাট রকড, কিউতে ফেলে দিলাম।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

উদ্ভ্রান্ত পথিক এর ছবি

আমি গতকাল লর্ড অফ দ্যা রিং ৩টা হাইডেফ নামাইলাম ৮.৯ গিগা সব মিলায়! আমারো একটা টেরা ড্রাইভ দরকার মন খারাপ

---------------------
আমার ফ্লিকার

হিমু এর ছবি

দেখলাম। গানের কারণে উতরে যাবে আর কি। খানিকটা কাতুকুতু দিয়ে হাসানো কিসিমের সিনেমা।



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

রায়হান আবীর এর ছবি

খানিকটা কাতুকুতু দিয়ে হাসানো কিসিমের সিনেমা।

কইছাপ্নারে! সিনামা আজকে দেখলাম। আমার অতিভালু লাগছে, কোথাও খ্যাক খ্যাক হাসি নাই সত্যি, তবে পুরোটা সময় মুখে একটা আনন্দের হাসি লেগে ছিল।

সর্বোপরি দুই ঘন্টা নয়মিনিটের নির্মল আনন্দ দেবার জন্য মুভিকে জাঝা। আর অনিক কেও। পোস্ট না দিলে দেখাই হইতো না হয়তো!


পুচ্ছে বেঁধেছি গুচ্ছ রজনীগন্ধা

লীন এর ছবি

দেখিনাই

______________________________________
স্বপ্নবাজ

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।