'ধরায়া দিবানেঃ' ইতিহাসের সাথী হই চলেন

ধুসর গোধূলি এর ছবি
লিখেছেন ধুসর গোধূলি (তারিখ: শুক্র, ১৬/০১/২০০৯ - ২:০৭অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

বেশী কথা কওয়ার বেইল নাই।

শ্রীলংকারে আইজকা শোয়াইবো, কইয়া দিলাম অর মায়রে বাপ!
লাইভ দেখেন এইখানে।

http://sl-ban.blogspot.com/ অথবা
http://tvu-cricket-bd.blogspot.com/

সাঙ্গাকারার নামে তাবিজকবজ করেন ভাইসব। এই হালায় ঝামেলা করবো মনে হৈতাছে। বজ্রকণ্ঠে সবাই আওয়াজ তোলেন-

হালার হালা সাঙ্গাকারা
ক্রিজ ছাইড়া সইরা খাড়া


মন্তব্য

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

উলটাপালটা কিছু হইলে আপনার খবর আছে।

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- হালার দুইটায় এমনে খুঁটি গাইড়া খাড়াইছে ক্যান? দোয়া দরূদ পড়েন, কাঠিবাজি শুরু করেন, মন্ত্রটন্ত্র শুরু কইরা দেন, যা খুশি করেন তাও এই দুই হালার জুটি ভাঙেন। আর ভাল্লাগেনা! মন খারাপ
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

ধুসর গোধূলি এর ছবি
সজারু এর ছবি

হালারা মনে হয় গে

________________________

সর্বাঙ্গ কন্টকিত-বিধায় চলন বিচিত্র

_________________________

সর্বাঙ্গ কন্টকিত-বিধায় চলন বিচিত্র

সবজান্তা এর ছবি

হালার আমি হইলাম পুরা কুফা।

আমি খেলা দেখলেই বাংলাদেশ হারে।

আমি এতক্ষণ নাক মুখ গুইজা পড়তেছিলাম। হঠাৎ বাপে ফোন দয়া জিগাইলো খেলা দেখি নাকি ? খেলার বলে 'সিরাম' অবস্থা। দৌড়ায়া গেলাম। এরপর থিকা আর উইকেট পরে না।

আমি টিভি অফ করছি বহু আগেই... এইবার নেট থেকেও লগাউট করুম, তবুও জিতরে ভাই।


অলমিতি বিস্তারেণ

ধুসর গোধূলি এর ছবি
দৃশা এর ছবি

ব্রেকে মুবারক রে জুলাপ মিশ্রিত তবারক খাওনের ব্যবস্থা করা হউক আর সাঙ্গা কে নাঙ্গা করে পশ্চাদেশে বেত্রানোড় ব্যবস্থা নেওয়া হউক।
-------------------------------------------------
দুঃখ তোমায় দিলেম ছুটি...
বুক পাঁজর আজ ফাঁকা।
দুঃখ বিদায় নিলেও সেথায়...
দুঃখের ছবি আঁকা।

দৃশা

ধুসর গোধূলি এর ছবি
আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

সাঙ্গাকারার খেলা সাংগ হবার জন্য হাত তুলেন সবাই ।

ধুসর গোধূলি এর ছবি
সবজান্তা এর ছবি

যদি আমি চউক্ষে ভুল না দেইখা থাকি রুবাবা'র দুই সীট পাশে জনাব মঈন উ।


অলমিতি বিস্তারেণ

ধুসর গোধূলি এর ছবি
এনকিদু এর ছবি

ধারাভাষ্যকার যখন আতাহার আলী খান, কম করে হলেও তিনবার সবাইকে বলেছেন যে এই কালো চশমা পড়া জেনানাই রুবাব দৌলা মতিন । দেশে বিদেশে কারো ভুল করার কোন চান্স দেয় নাই । আবার জেনারেল মইন ইউ এর নাম বলেছে মাত্র দুইবার দেঁতো হাসি


অনেক দূরে যাব
যেখানে আকাশ লাল, মাটিটা ধূসর নীল ...


অনেক দূরে যাব
যেখানে আকাশ লাল, মাটিটা ধূসর নীল ...

বিপ্রতীপ এর ছবি

সাঙ্গাকারা আউট না হইলে খবর খারাপ আছে মন খারাপ

আপ্নের লিংকটা এখন আর কাজ করতেছে না ক্যান জানি...
~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
খুঁজে যাই শেকড়ের সন্ধান...

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- জাস্টিন নিজেই অফলাইন হয়া গেছে। খুঁজাখুঁজি জারী আছে। পাইলেই জানামু জনাব! ততোক্ষণ চোখ বুইজা ধ্যান করেন। সাঙ্গুর খেল সাংগ করেন।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

আমগোর নজরুল ভাই কই!!!
সাঙ্গাক্কারাকে দুটা সিঙ্গারা ধরিয়ে দিয়ে বিদায় করা হোক চলুক
========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

সবজান্তা এর ছবি

সাঙ্গাকার'র উদ্দেশ্যে আমি গাইতে চাই...

তওবা কইরা বল (ক্রিকেট বল এই ক্ষেত্রে) কেলাডা চার...


অলমিতি বিস্তারেণ

তীরন্দাজ এর ছবি

একটু ডর ডর লাগতাছে এহন! ঝারাঝাড়ি করলাম অনেক। কিন্তু সাঙ্গাকার আউট হইব কবে?
**********************************
কৌনিক দুরত্ব মাপে পৌরাণিক ঘোড়া!

**********************************
যাহা বলিব, সত্য বলিব

আবির আনোয়ার এর ছবি
ধুসর গোধূলি এর ছবি

- আপনে ভাই মারুফীর লাইগা কিছু করেন। কুলফি ঘুষ দেন, কাজ না হইলে ইটপাটকেলের ডর দেখান। তাও অরে খেদান। আর সইহ্য হৈতাছে না!
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

পথে হারানো মেয়ে এর ছবি

এখানে দেখুন।

http://sl-ban.blogspot.com/

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- আপনে পানিপড়া নিয়া আসেন, তারপর ঐটা নিয়া মিরপুর দৌড়ান। স্টেডিয়ামের চাইরপাশে ছিঁটায়া দেন। এনশাল্লা সাঙ্গুর পেট কামড়ানি শুরু হয়া যাবে!
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

পথে হারানো মেয়ে এর ছবি

তারআগে পীরবাবার কাছ থেকে বাংলাদেশে যাওয়ার টিকেট আনেন!
দরকার হলে কুফরি-কালামও পড়ে দেয়া যাবে।

অপু এর ছবি

আইজ উল্টাপাল্টা কিছু হইলে তোর খবর আছেরে রুমনের বাচ্চা, পিঠে খোল বান্ধনের ব্যবস্থা রাখিস।

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

মুলতানের কথা মনে পড়ছে... এলবিডব্লিউ দেয় না, জেতা খেলা বের হয়ে যায়...

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- ইয়েসসসসসসসসসসসসসসসসসসসস
সাকিবববববববববববববববববব !!!!

সাঙ্গুর বাচ্চা বহুত তাফালিং কইরা গেলো!
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

বিপ্রতীপ এর ছবি

সাঙ্গারকারা আউউউউউউউউউউউউউট!!!!!
~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
খুঁজে যাই শেকড়ের সন্ধান...

তানভীর এর ছবি

সাঙ্গা নাঙ্গা হয়ে গেছে গা

তানভীর এর ছবি

আরেকটা গেছে

ধুসর গোধূলি এর ছবি
শামীম এর ছবি

চউক্ষে পানি চইল্যা আইতাছে ... ..
________________________________
সমস্যা জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ; পালিয়ে লাভ নাই।

________________________________
সমস্যা জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ; পালিয়ে লাভ নাই।

সৌরভ এর ছবি


সাকিব, সাকিব, সাকিব.... সাকিব এর সামনে মুরালির ঠ্যাং কাপতেসে।


আবার লিখবো হয়তো কোন দিন

ধুসর গোধূলি এর ছবি
সৌরভ এর ছবি

মুরালিরে চাইপ্যা ধর চাইরপাশ থাইকা। এমনে আউট হইবো।


আবার লিখবো হয়তো কোন দিন

ধুসর গোধূলি এর ছবি
জ্বিনের বাদশা এর ছবি

ধূররররর!!!!
খেলাটাই তো নষ্ট কইরা দিলো ... মন খারাপ
========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- ধইরা থাবড়াইয়া শিখানো উচিৎ আগের ওভারে পিডা খাইয়া পরের ওভারে একই খেলোয়াড়রে বিশেষ করে মুরালীরে শর্টপিচ ডেলিভারী ক্যান দেয় শালা! জেতা ম্যাচটা দিলো হারাইয়া।

ধুরো!!
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

কপাল শালার... মুরালিও এই রকম খেলে।

শামীম এর ছবি

হায়রে ....

শুধুমাত্র ক্রিকেট খেলা জন্য ফসকায় গেল .... .... মন খারাপ
________________________________
সমস্যা জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ; পালিয়ে লাভ নাই।

________________________________
সমস্যা জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ; পালিয়ে লাভ নাই।

সৌরভ এর ছবি


আশরাফুল রে ধৈরা গরমডিম থেরাপি দেওন দর্কার। ক্রিটিকাল মুহূর্তে যে বোলার ২০ রান দেয়, তারে আরেক ওভার বল কর্তে দেয় ক্যাম্নে?
শালা রানও কর্তে পারে নাই, আবার ক্যাপ্টেন হৈয়া ালের ভাব নিতাসে। মেজাজটাই খারাপ করাইয়া দিলো।


আবার লিখবো হয়তো কোন দিন

সুমন চৌধুরী এর ছবি

নঈম এখনো স্লগ ওভারের বোলিং শিখে নাই..



অজ্ঞাতবাস

শামীম এর ছবি

লগে ক্যাপ্টেনও স্লগ ওভার কারে কয় শিখে নাই।
________________________________
সমস্যা জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ; পালিয়ে লাভ নাই।

________________________________
সমস্যা জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ; পালিয়ে লাভ নাই।

অপু এর ছবি

মন খারাপ করিস না ধুগো। আমগো এমনি হয়। চল ঘুমাইতে যাই।

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- মন খারাপ করুমনা মানে? আপনে একটাবার চিন্তা কইরা দেখেন। এই অবস্থায় আমাগো পাড়ার পল্টুরে খাড়া করাইয়া দিলেও ম্যাচ বাইর কইরা নিয়া আসতো। আর হালার পুতেরা কোটি কোটি মানুষের ইমোশন নিয়া খেলামেলা করে। তোরা বালটা খেলতে জানোস না তাইলে চুপ কইরা সাইড লাইনের বাইরে গিয়া বয়া থাক। তোগোর চাইতে বহুত এডোম বাংলাদেশের আতাড়েপাতাড়ে ঘুইরা বেড়াইতাছে শালা নাটকির পোরা।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

এই পরাজয়ের সকল দায়ভার ধুসর গোধুলিকে নিতে হবে, তার বাল্যবন্ধু মুরালীধরনকে ব্যান করতে হবে

সৌরভ এর ছবি

হ। আপ্নারেও। আশরাফুল আপ্নার বাল্যবন্ধু, ধুগোয় কয়।


আবার লিখবো হয়তো কোন দিন

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- মউলানার দোস্ত আশরাফুল মখলুকাতরে কাইত করে সাইড লাইনে দাঁড় করায়া রাখা হোক সারা দুপুর উপরের দিকে মুখ করায়া। নড়াচড়া করলেই আইপি শুদ্ধা ব্যান এই শালা আর এই শালার বোলাররে।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

করলে আইপি শুদ্ধা ব্যান করবেন... সেই সাথে যাবতীয় দুষ্কর্মের প্রিন্টস্ক্রিন আমি যদি হুকুম দেবার নাও পারি আপনারা প্রত্যেক ঘরে ঘরে পৌঁছে দেবেন...

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- বোলার ব্যাটারে কান ধরে পত্রপাঠ বায়ান্নটা উঠবস করানো উচিৎ আর তারে বল হাতে আগায়া দেয়ার জন্য আশরাফুল মখলুকাতরে বায়ান্ন দুগুণে ১০৪বার উঠবস, তাও অন্যে এসে তার কান টেনে ধরবে। মুরালী এক্ষেত্রে ভালো চয়েস। শালায় আবার মুরালী'র লগে তর্ক করে। ফাজিল জানি কোন খানকার!
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

কিয়ার্বো কন? খ্যালতারে না তো...

আরে! এর ছবি

৪৫তম ওভারটাই সব মাটি করলো। জাস্ট একটা ওভার!
যা হোক, ভালো লড়াই হয়েছে। পারফেক্টলি পজিটিব গেইম।
বেটার লাক নেক্সট টাইম।

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

কিছু করার ছিল না আসলে। ৬ রানে ৫ উইকেট পড়ার পর এই খেলা ৪৫ ওভার পর্যন্ত যাওয়ার কথা না। আমরা জিতলেও না, ওরা জিতলেও না। সেই হিসেবে স্ট্রাইক বোলারদের ওভার বাকি না রাখা ঠিক সিদ্ধান্তই ছিল।

২০ রান দেওয়ার পরও রুবেলকে আনতেই হত, কারণ অন্যথায় ডেথে এসে ৬ষ্ঠ বোলার আনতে হত। ১৪০ কিমি গতির বোলার থাকলে আশরাফুল বা আর কারও আসার কোন অর্থ নেই।

দুই-চারটা ইয়র্কার দেওয়া উচিত ছিল। প্রথম যেই বলে চার মারলো, সেটায় ধোঁকা দেওয়ার জন্য হলেও ওভারপিচ বল করা উচিত ছিল।

শেষত, শেষ দিকে ফিল্ড সেটিং দিয়ে না যেত রান বাঁচানো, না যেত উইকেট নেওয়া। কেউ না কেউ পাগলা বাড়ি দিতোই। সেটা মাথায় রেখে একটু আক্রমণাত্মক ফিল্ড সেট করা যেত।

যাক, গতস্য শোচনা নাস্তি। ওপেনারগুলারে থাবড়ানের কাম, এটাই বুঝি। এগুলা না পারে ব্যাট করতে, না পারে বল করতে, না পারে ক্যাচ ধরতে।

আশরাফুলরে কেউ টেন্স আর নাম্বার শিখায় না কেন? আর ছাতার মাথা প্রোফেশনাল ক্রিকেট কওয়া বন্ধ করবে কবে??

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- রুবেল নি ঐ পোলার নাম? নাম তো মাশাল্লা মার্শাল আর্টের গুরুর নামেই কামে ঐরম কাঁচা ক্যান?

১৪০ কিমির গতি নিয়া বল করুক সমস্যা নাই, কিন্তু আগের ওভারে একই ব্যাটসম্যানের কাছে একই ধরণের বলে মাইর খায়া সে কোন সাহসে আবার একই বল করতে যায়? এখন তার যদি এইটুকু ভ্যারিয়েশন না থাকে, যদি ক্রিশিয়াল মোমেন্টে লেন্থ বদলাইয়া বল না ফেলতে পারে তাইলে বালটা ফেলতে ন্যাশনাল টীমে ঢুকছে? আর ক্যাপ্টেনের বাচ্চা তারে কি বুদ্ধিটা দিছিলো বল তুইলা দেয়ার সময়? যখন দুইটা বল করলো তখন আইসা ক্যান কইলো না অর বোলিং ঠিক হৈতাছে না। অরে কি গ্যালারীর দর্শকদের মতো খেলা দেখার জন্য ক্যাপ্টেন বানায়া মাঠে রাখা হৈছে?
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

ঐ যে কইলাম, খেলাটা আসলে ৪৫ ওভার পর্যন্ত যাওয়াটাই ছিল একটা না-হক ব্যাপার। এরপর বাকি টুকিটাকি নিয়ে ভেবে লাভ নাই। সাঙ্গাকারা যেমন কইলো, মুরালিরই ম্যান-অফ-দ্য-ম্যাচ হওয়া উচিত (আমারো তাই মত), তেমনই আর কি।

কপাল সাথে ছিল দেখেই মুরালির আন্ধা বাড়িগুলাও চার-ছয় হল। এর অন্তত একটা আসমানে উঠলেই খেলা চুকে যেত। এটা কপালের মামলা।

কিন্তু যেই লোপ্পা ক্যাচ মিডঅফে নাঈমুল মিস করলো, যেই রানআউটে আশরাফুল বল তুলতে পারলো না, যেই ক্যাচ মুশফিকুর আজাইরা ফালাফালি করতে গিয়ে মিস করলো সেগুলা তো দৈবদুর্বিপাক না।

আর ওপেনার গুলার কথা কী কমু আর। দুই আহাম্মক না পারে রান করতে, না পারে ক্যাচ ধরতে। বোলিং-এ তো নাইই। ভাগাভাগি কইরা দুইটা ক্যাচ ফালাইছে। তামিমেরটা "কঠিন", বুঝি, কিন্তু অদ্দুর যাওয়ার পর হাত থেকে বের হওয়ার কথা না। জুনায়েদের তো পেট নাড়তে নাড়তেই তিনদিন। আম্পায়ারিং নিয়া কইলাম না। টাইট ম্যাচে এলবি'র আপিল করাই ছেড়ে দেওয়া উচিত।

১৫৩ রান চেজ করে এই পিচে ৬/৫ হওয়ার পর খেলা ৪৫ ওভার পর্যন্ত যায় না। কোন দলের বেলায়ই না।

শালার ুতিয়া টাইপ গেল গুলা আমরাই হারি বারবার।

গৌতম এর ছবি

মেজাজ চ্রম খ্রাপ।
.............................................
আজকে ভোরের আলোয় উজ্জ্বল
এই জীবনের পদ্মপাতার জল - জীবনানন্দ দাশ

ব্লগস্পট ব্লগ ::: ফেসবুক

.............................................
আজকে ভোরের আলোয় উজ্জ্বল
এই জীবনের পদ্মপাতার জল - জীবনানন্দ দাশ

হিমু এর ছবি
পরিবর্তনশীল এর ছবি

কিছুই ভাল্লাগতেছেন না।
---------------------------------
ছেঁড়া স্যান্ডেল

সবজান্তা এর ছবি

দোষ যা দেখি আশরাফুলেরই। বোলারের অভিষেক সিরিজ - ইন্টারন্যাশনাল ম্যাচের প্রেশার হ্যান্ডেল করা এখনো শিখে নাই। ধারভাষ্যকার পর্যন্ত চমকায়া গেছে বোলিং সিলেকশন দেইখা...

এই সিদ্ধান্তটাই আশরাফুল নিলে সাহসী কইতাম, যদি এরকম মাইর মাশরাফি খাইতো, আর তার পরের ওভারেও ওর হাতে বল দিতো।


অলমিতি বিস্তারেণ

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

কোন সমস্যা নাই। আশরাফুলের দোষ দেয়া ঠিকনা। রুবেল উইকেট পেলেই সবাই খুশি হতো, পায়নি তাই সবার মন খারাপ। এবার হয়নি, পরেরবার নিশ্চই হবে।

এনকিদু এর ছবি

সেই ...
চলেন আবার আশাবাদী হই ।


অনেক দূরে যাব
যেখানে আকাশ লাল, মাটিটা ধূসর নীল ...


অনেক দূরে যাব
যেখানে আকাশ লাল, মাটিটা ধূসর নীল ...

রায়হান আবীর এর ছবি

সাংগারে নিয়া কোবতে ভালো হইছে গুরু। চ্রম।

=============================

ভূঁতের বাচ্চা এর ছবি

জ়েতা ম্যাচটা হেরে আসল।
খুব টাইট ম্যাচ হইসে।

--------------------------

--------------------------------------------------------

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।