লুন্ড শহরের ১৪ ঘন্টা

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: সোম, ২৫/১০/২০১০ - ৮:৪১পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

সন্ধি

মাস পাঁচেক আগে একটা কনফারেন্সে সুইডেনের দক্ষিণের শহর লুন্ড এ যাওয়া পরেছিল। যাওয়াটা অবশ্য চরম রকম অ্যাডভেঞ্চারের ক্যাটাগরিতে পরে। কারণ স্ক্যান্ডিনেভিয়াতে সাধারণত মানুষ দূরের পথ বিমানে না উড়তে পারলে রেলে যাতায়াত করে। আমি আবার আরেক কাঠি সরেশ । ভাবলাম একবার বাসে চড়ে গেলে কেমন হয়? দেশে থাকতে তো বাসে চড়তে খুব একটা মন্দ লাগতো না। যাই হোক জাহাজের খবর প্রচুর দেয়া হয়েছে। একদিনের কনফারেন্স সময় নিয়েছে পাক্কা ৯ ঘন্টা, তারপরও কিছুটা সময় হাতে রেখেছিলাম চারদিকটা একটু দেখবো বলে ।

মজার ব্যাপার হলো পুরো লুন্ড শহরটা বলা চলে ভার্সিটি কেন্দ্রিক। অনেকটা মার্কিন মুল্লুকের খ্যাতনামা বিশ্ববিদ্যালয় শহরগুলোর মতো। ছবিগুলো ফ্লিকারে পরে ছিল অনেকদিন ,তাই ভাবলাম সচল বন্ধুদের সাথে শেয়ার করি। আমি যেমন ছবি তুলি আনাড়ি হাতে, তেমনি আমার ক্যামেরা বাবু সোনাদের পয়েন্ট এন্ড শুট। আগেই বলে দিলাম

কনফারেন্স শেষ করে কনফারেন্স সেন্টার দিয়ে শুরু করলাম ছবি তোলা।

SDC10713

ও আচ্ছা বলা হয়নিতো !! আমার ঘনিষ্ঠ পরিচিত সিনিয়র এক বুয়েটিয়ান শাওন ভাইয়া ( ইইই) এই লুন্ড শহরে তার ডেরা পেতেছে বহুদিন ধরে। তার বাসায় যেতে তুললাম আরো খান কতক

লুন্ড বিশ্ববিদ্যালয়েয় লাইব্রেরি, বেশ চমৎকার একটা রাজবাড়ী ভাব

SDC10723

আলহেলাগুলা শিরকা (সুইডেনে শিরকা হলো গীর্জা)

SDC10731

গণিতবিদদের পাঠশালা, বেশ গোছানো একটা মাঠ ,তাইনা

SDC10737

অঞ্জলি ভরে ........ পানি তো মনে হচ্ছে

SDC10736

লুন্ড শহরের রাস্তা

SDC10715

দেখুন তো কেমন ছিমছাম পায়ে চলা পথ

SDC10738
SDC10715

আরিফিন সন্ধি
সুইডেন


মন্তব্য

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

সুন্দর শহর মনে হচ্ছে। ছবি এত কম আর লেখা এত ছোট কেন ???

সন্ধি [অতিথি] এর ছবি

ধন্যবাদ, আমার বাংলা লেখার গতি কচ্ছপের চেয়েও ধীর আর প্রথম বাংলা ( মানে কম্পিউটারে বিজয় দিয়ে লেখা শুরু করেছিলাম বলে এখনও অভ্রতে উঠতে পারিনি) আশা করছি পারবো।

অতিথি লেখক এর ছবি

ছবি ভালো লেগেছে।
উন্নত সব দেশের অনেক শহরেরেই প্রায় একই রকম চিত্র।

পাগল মন

সন্ধি [অতিথি] এর ছবি

ধন্যবাদ

অতিথি লেখক এর ছবি

পোষ্টটা ফাঁকিবাজি হয়ে গেল ভাই ! লুন্ড শহরের ভার্সিটি নিয়ে সেখানে প্রবাসিদের নিয়ে একটা বিস্তারিত পোষ্ট ভবিষ্যৎতে আপনার কাছ হতে পাওয়ার অপেক্ষায় রইলাম।

সন্ধি [অতিথি] এর ছবি

মাত্র ১৪ ঘন্টার মাঝে ৫ ঘন্টা ফাঁকা পেলাম। তাতে কি এতো কিছু দেখা যায় বলুন।
তবে আশা রাখছি পরে আবার গেলে আর কার জন্য না হোক আপনার জন্য হলেও কিছু লিখবো।

তৌফিক হাসান [অতিথি] এর ছবি

লুন্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম শুনসি অনেক। এইবার দেখলাম। লেখাটা আর একটু বড় হলে ভাল হত। কেমন জানি হঠাৎ শেষ হয়ে গেল। যা হোক, শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

সন্ধি [অতিথি] এর ছবি

ধন্যবাদ

কৌস্তুভ এর ছবি

ছবি ভালো হয়েছে। শহরটার উচ্চারণ 'লুন্ড' ই তো? হিন্দি তে আবার 'lund' জিনিসটা গোলমেলে হয়ে যেতে পারে... খাইছে

বাসে করে (স্টকহোম থেকে?) যেতে কতক্ষণ লাগল?

এখন ওদিকে সাবধানে থাকেন ব্রাদার। মালমোর খবর শুনেছেন তো...

সন্ধি [অতিথি] এর ছবি

বাসে করে দশ ঘন্টা।
যা বলেছেন চোখ টিপি ;)

সিরাত এর ছবি

ভাল লাগলো। একটু কম হয়ে গেল যদিও। হাসি

সন্ধি [অতিথি] এর ছবি

নি:সন্দেহে আত্বসমর্পণ।
কথা দিচ্ছি অভ্র ইনস্টল করে আরো বড় লেখা লিখবো।

তাসনীম এর ছবি

সুন্দর জায়গা...ঠান্ডার সময় ভয়াবহ হয়ে যায় নিশ্চয়ই। ছবি ও লেখা ভালো লেগেছে, যদিও সবার মত আমারো মনে হয়েছে আরেকটু বড় করা যেত লেখার অংশটা।

________________________________________
অন্ধকার শেষ হ'লে যেই স্তর জেগে ওঠে আলোর আবেগে...

________________________________________
অন্ধকার শেষ হ'লে যেই স্তর জেগে ওঠে আলোর আবেগে...

সন্ধি [অতিথি] এর ছবি

সুন্দর জায়গা। তবে ঠান্ডা মনে হয় ততোটা না। আমি আমার স্টকহোমের সাথে তুলনা করে বলছি। কারণ এটা তুলনামূলক দক্ষিণে।

লেখা বড় করবো আর মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

অতিথি লেখক এর ছবি

আরেকটু বিস্তারিত হলে ভালো হতো। পরে লিখবেন আশাকরি। লুন্ডের যে ছবিগুলো দেখলাম তাতে মনে পড়ছিলো কোপেনহেগেনের কথা, একদম একই রকম।

রাতঃস্মরণীয়

সন্ধি [অতিথি] এর ছবি

অবশ্যই বিস্তারিত করবো আমার অন্য কোন লেখায়। আপনি ঠিক ধরেছেন ।লুন্ড আসলে মালমোর খুব কাছে।
আর আমি যে বাসে করে গিয়েছিলাম সেই বাসের সবর্শেষ গন্তব্য ছিল কোপেনহেগেন।

তিথীডোর এর ছবি

আরো 'স্বাস্থ্যবান' লেখা চাই! খাইছে
ছবিগুলো সুন্দর!

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

সন্ধি [অতিথি] এর ছবি

সত্যি তাই !! স্বাস্থ্রবান লেখার জন্য সময় দরকার। আর আমার সেটাতে বড্ড টানাটানি চলছে।
আর অভ্র এর কথাতো বললাম।

এনায়েৎ ইউ এস ইসলাম এর ছবি

বুঝেছি আপনি কম কথার লোক! ছবিগুলো সুন্দর। সবুজ মাঠে পলিথিন, ইট কিংবা কাগজের টুকরো নেই। ফুটপাতে গর্ত কিংবা হকার নেই। কনফারেন্স সেন্টার আর লাইব্রেরীর সামনে অনেকগুলো সাইকেল। আমাদের মতো ধনী হলে সেখানে মটরসাইকেলের সারি থাকতো। ভালো লাগলো। আপনাকে ধন্যবাদ ...

সন্ধি [অতিথি] এর ছবি

না ভাই, আমি বেশ ভালই কথা বলতে পারি । হাসি :)
কিন্তু কি-বোর্ডের বাংলায় আমায় ঝড় ওঠেনা :(। বরঞ্চ বলা যায় ইলশেগুঁড়ি!! মন খারাপ:(

রিম সাবরিনা এর ছবি

হ্যালো সন্ধি! তুমি সচলায়তনে লেখো নাকি? ভালো লাগলো ছবিব্লগটা। সময় পেলেই আবার লিখো। ভালো থেকো!!

-রিম

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA