ছবি ব্লগ- আমার জীবনের আনন্দ = জীবনানন্দ, ২

তারেক অণু এর ছবি
লিখেছেন তারেক অণু (তারিখ: মঙ্গল, ২৫/০৯/২০১২ - ৩:১৮অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

১ম পর্বে সবাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ উৎসাহ দেবার জন্য, সেই আনন্দ থেকেই ২য় পর্ব পোস্ট করে ফেললাম পথে থেকেই, মোট ১৫টা আলোকচিত্র আছে এখানে। ইচ্ছামত মন খুলে সমালোচনা করুন। জানান কোথায় কমতি আছে। আর যদি আপনাদের ভাল লাগে, একটি ছবি দেখেও যদি নির্জনতম কবির নির্জনতর কবিতা মনে আসে, তাহলে ভবিষ্যতেও সিরিজটি চালু রাখার আশা করি, সবাইকে বিলেতের বৃষ্টিভেজা শুভেচ্ছা।

এই সিরিজটি বিশ্বের সেইসব মানুষের জন্য যারা কবিতা ভালবাসে, জীবনকে ভালবাসে, জীবনানন্দকে ভালবাসে। এবং বিশেষ করে দুজন মানুষের জন্য, তারা হলেন- কুখ্যাত জীবনানন্দ প্রেমী নাবিউল আফরোজ ( ব্লগার রাফি) এবং আমাদের সকলের প্রিয় ব্যানার্জী স্যাম।

জানো না কি নিশীথ,
আমি অনেক দিন--অনেক অনেক দিন
অন্ধকারের সারাৎসারে অনন্ত মৃত্যুর মতো মিশে থেকে
হঠাৎ ভোরের আলোর মুর্খ উচ্ছ্বাসে নিজেকে পৃথিবীর জীব ব'লে
বুঝতে পেরেছি আবার-
546567_10152087203735497_1649539351_n

আমার হৃদয় পৃথিবী ছিঁড়ে উড়ে গেল,
নীল হাওয়ায় সমুদ্রে স্ফীত মাতাল বেলুনের মতো গেল উড়ে,
একটা দূর নক্ষত্রের মাস্তুলকে তারায়-তারায় উড়িয়ে নিয়ে চললো
একটা দুরন্ত শকুনের মতো।
550774_10152129748655497_554256842_n

সুচেতনা, তুমি এক দূরতর দ্বীপ
বিকেলের নক্ষত্রের কাছে;
সেইখানে দারুচিনি বনানীর ফাঁকে
নির্জনতা আছে।
564370_10152101321125497_1179313514_n

-বেলা বয়ে যায়!
গোধূলির মেঘ-সীমানায়
ধুম্র মৌন সাঁঝে
নিত্য নব দিবসের মৃত্যুঘণ্টা বাজে
শতাব্দীর শবদেহে শ্মশানের ভস্মবহ্নি জ্বলে!
পান্থ ম্লান চিতার কবলে
একে একে ডুবে যায় দেশ, জাতি,- সংসার, সমাজ,
কার লাগি হে সমাধি, তুমি একা বসে আছ আজ
কী এক বিক্ষুদ্ধ প্রেতকায়ার মতন!
576846_10152103566365497_1349154530_n

কেমন ছড়ানো লম্বা ডানাগুলো সারাদিন সমুদ্র- পাখির।
যত দূর চোখ যায় সাগরের গাঢ় নীলিমায়
নিজেকে উজোতে গিয়ে চোখের নিমেষে
সকালবেলায় রোদ পাখি হয়ে যায় ।
557088_10152119705030497_1527516345_n

কখনো বা মৃত জন মানবের দেশে
দেখা যাবে বসেছে কিষাণ:
মৃত্তিকা-ধূসর মাথা
আপ্ত বিশ্বাসে চক্ষুন্মান।
247647_10152131149405497_60208621_n

প্রস্তরযুগের সব ঘোড়া যেন-- এখনও ঘাসের লোভে চরে
পৃথিবীর কিমাকার ডাইনামোর 'পরে ।
550538_10152126500985497_1435443719_n

যখন জামের ডালে পেঁচার নরম হিম গান শোনা যায়,
530214_10152124463815497_1585673132_n

কবের সে বেবিলন থেকে আজ শতাব্দীর পরমায়ু শেষ
কি এক নিমেষ শুধু মানুষের অন্তহীন সহিষ্ণুতায়?-
নক্ষত্রের এক রাত্রি- একটি ধানের গুচ্ছ- একবেলা সূর্যের মতো?
- কেবলই মূষলপর্ব শেষ করে নব শান্তিবাচনের পথে
মানবের অভিজ্ঞতা বেড়ে মানুষেরই দোষে হতাহত
528052_10152092165655497_882537394_n

তুমিও আমার মতো সমুদ্রের পানে, জানি, রয়েছ তাকায়ে,
ঢেউয়ের হুঁচোট লাগে গায়ে,-
ঘুম ভেঙে যায় বার-বার
তোমার — আমার!

আমিও তোমার মতো রাতের সিন্ধুর দিকে রয়েছি তাকায়ে,
ঢেউয়ের হুঁচোট লাগে গায়ে
ঘুম ভেঙে যায় বার -বার
তোমার আমার!
296413_10152114134415497_1889521481_n

একে একে হরিণেরা আসিতেছে গভীর বনের পথ ছেড়ে,
সকল জলের শব্দ পিছে ফেলে অন্য এক আশ্বাসের খোঁজে
দাঁতের-নখের কথা ভুলে তাদের বোনের কাছে ওই
সুন্দরী গাছের নিচে- জ্যোৎস্নায়!-
মানুষ যেমন করে ঘ্রাণ পেয়ে আসে তার নোনা মেয়েমানুষের কাছে
হরিণেরা আসিতেছে।
284487_10152093657505497_190478093_n

থুরথুরে অন্ধ প্যাঁচা এসে
বলেনি কি; বুড়ি চাঁদ গেছে বুঝি বেনো জলে ভেসে?
চমৎকার!-
ধরা যাক দু-একটা ইঁদুর এবার!
জানায়নি প্যাঁচা এসে এ তুমুল গাঢ় সমাচার?
423894_10152091580535497_852092195_n

সমস্ত দিনের শেষে শিশিরের শব্দের মতন
সন্ধ্যা আসে;
530174_10152096467785497_2137727366_n

অলস মাছির শব্দে ভরে থাকে সকালের বিষন্ন সময়
পৃথিবীরে মায়াবীর নদীর পারের দেশ বলে মনে হয়;
223799_10152104703545497_917304670_n

ফিরে এসো সমুদ্রের ধারে,
ফিরে এসো প্রান্তরের পথে;
যেইখানে ট্রেন এসে থামে
3368_10152119682420497_417281156_n


মন্তব্য

পরী  এর ছবি

পপকর্ন লইয়া গ্যালারীতে বইলাম
মুগ্ধ হয়ে দেখলাম আর কবিতাগুলো পড়ে গেলাম। পরবর্তী পর্বের অপেক্ষায় রইলাম। প্রতিটা আলোকচিত্রের সাথে কবিতার সামঞ্জস্য অতীব অসাধারন। লেখা -গুড়- হয়েছে

তারেক অণু এর ছবি

না, না, সামঞ্জস্যের খোজে যেতেই হবে বাংলাতে।

সবুজ পাহাড়ের রাজা এর ছবি
তারেক অণু এর ছবি
তারেক অণু এর ছবি

চেষ্টা করে যাব।

Kibria এর ছবি

অনু ভাই,সিরিজ চলুক আপন গতিতে .....
উত্তম জাঝা! লেখা -গুড়- হয়েছে

তারেক অণু এর ছবি

চেষ্টা করে যাব।

সুমিমা ইয়াসমিন এর ছবি

সিরিজ চলুক...। অণু, ছবিগুলো কোন্ কোন্ এলাকা থেকে তোলা তার উল্লেখ থাকলে মনে হয় ভালো হতো।

তারেক অণু এর ছবি

প্রথমে ভেবেছিলাম স্থানের নাম আর কবিতার নাম দিয়ে দিব, কিন্তু মনে হল শব্দের বাহুল্যে তাল কেটে যেতে পারে-

অনিকেত এর ছবি

জীবন বাবু যে কেবল এই নীল বাংলার ঘাসফড়িং, কালীদহ, গাঙুড়ের ধবল জ্যোৎস্নার জন্যে নন, তিনি যে সারা পৃথিবীর সকল প্রান্তের বিষন্নতা ধরতে পেরেছিলেন তা কাব্যে---তার চিত্রকল্প এই সিরিজ। আমার প্রিয় কবি আর প্রিয় ব্লগার যখন একখানে হয়েছেন, সেটা বিষ্ফোরক না হয়েই যায় না।
চমৎকার সকল ছবি তার সাথে জীবন বাবুর পংক্তি।
কোন কারণে শেষ ছবিটা একটু বেশিই মনটা কেড়ে নিল। মাঝে মাঝে খুব ইচ্ছে হয় এই রকম গন্তব্যহীন কোন এক ইষ্টিশানে গিয়ে থেমে থাকি অনির্দিষ্ট কালের জন্যে---

অনেক অনেক শুভেচ্ছা!
"বিশালাক্ষি তারে দিয়েছিল বর
তাই সে জন্মিয়াছে নীল বাংলার ঘাস আর ফুলের ভিতর"

তারেক অণু এর ছবি

শুধু ইচ্ছেই করে না দাদা, বুকটা টনটন করে ওঠে।

উচ্ছলা এর ছবি

ছবি আর কবিতার যুগলবন্দী সিরিজটি অসাধারণ হচ্ছে, অণু চলুক

তারেক অণু এর ছবি
মোহছেনা ঝর্ণা এর ছবি

চলুক

তারেক অণু এর ছবি
তিথীডোর এর ছবি

একটা রিকোয়েস্ট করব ভাবছিলাম কদিন ধরে, বলতেই হলো না আর। দেঁতো হাসি

পোস্টে শত তারা। চলুক হাততালি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

তারেক অণু এর ছবি

কি রিকু, রিফু আপা?

তিথীডোর এর ছবি

ওই ওই, আমি কি দরজি নাকি? শয়তানী হাসি রেগে টং শয়তানী হাসি

কী রিকু, এখন আর কৈতান্ন। খাইছে

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

স্যাম এর ছবি

হাসি হাসি হাসি
দারুন!!!!!
সত্যিই নাম আছে বলে না - এবারকার ছবিগুলো আগেরবার এর চাইতে আরো বেশি ভাল লেগেছে।
আর----- অনেক ধন্যবাদ দেঁতো হাসি

তারেক অণু এর ছবি

আপনি বললে দারুণ হতেই হবে-

স্যাম এর ছবি

[img][/img]
[img][/img]

তারেক অণু এর ছবি

আহা, মরি মরি! আপনের কাছে শিখতে হবে এই জিনিসগুলো

স্যাম এর ছবি

যা দারুন ছবি! হাসি কিছুই করতে হয়না - আপনি ছবির উপরে দিয়েছেন আমি দিয়েছি ভিতরে এই যা---
হরিন এর ছবিটা দেখেন - ব্যানার হয়েই আছে ! শুধু ব্যানার না পোস্টার, কার্ড, কভার - সবই করার মত ছবি!
তবে একটা জিনিস করতে পারলে পোস্ট টা দেখতে আরো সুন্দর লাগত - ছবির উপরে বা নীচে কবিতাগুলো না দিয়ে পাশে যদি দেয়া যেত - কিন্তু টেকনিক্যালি এটা মনে হয় সম্ভব না ইয়ে, মানে...
অনেকবার দেখার মত, পড়ার মত একটা সিরিজ হয়েছে অণুদা গুরু গুরু

তারেক অণু এর ছবি

সম্ভব হবে না কেনে! আপনি সম্ভবের উপায় বাহির করে আমাকে জানান! টেকিরা কই সব, জাগো বাহে-

নূপুরকান্তি এর ছবি

তারেক অণু,
আপনার লেখা, ছবিগুলো মুগ্ধ হয়ে পড়ি দেখি অনেকদিন থেকেই। জীবনান্দের কবিতার সংগে আপনার আলোকচিত্রের এই মেলবন্ধন অসাধারণ, তুলনাহীন।জীবনবাবুর কবিতাকে আরেকটু নিবিড়ভাবে দেখতে প্রেরণা দ্যায়।

আপনার ভ্রমণ এবং জীবনবোধ দেখে প্রায়ই আমার একটা কথা মনে হয়: বেশি না, তার এক অণু-র মতো হতে পারলেও মন্দ হতো না। দেঁতো হাসি

তারেক অণু এর ছবি

অনেক অনেক শুভেচ্ছা

অতিথি লেখক এর ছবি

ছবিগুলান বরাবরের মতন চ্রম!!

দেবা ভাই
-----------------------------------------
'দেবা ভাই' এর ব্লগ

তারেক অণু এর ছবি

চ্রম উদাস নাকি !

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

নতুনকরে আর কিইবা বলার আছে, সিরিজ চলুক।

তারেক অণু এর ছবি
কড়িকাঠুরে এর ছবি

চলছে গাড়ি- সিসিমপুরে... কুঁ ঝিক ঝিক... চলুক

তারেক অণু এর ছবি

কুউউ ঝিক ঝিক

অরফিয়াস এর ছবি

এটা দারুন হচ্ছে, জীবনানন্দের কবিতার সাথে ছবি !! নতুন একটা ধরণ এটা, চালিয়ে যাও ঘনুদা। হাসি

----------------------------------------------------------------------------------------------

"একদিন ভোর হবেই"

তারেক অণু এর ছবি

এর আগেও কাজ হয়েছে এইটা নিয়ে, কিন্তু মূলত বাংলার ছবি ছিল সেইখানে।

আব্দুল গাফফার রনি এর ছবি

পেঁচার ধূসর পাখা উড়ে যায় নষ্কত্রের পানে-
জলা মাঠ ছেড়ে দিয়ে চাঁদের আহ্বানে
ছবি ব্লগ পাখা মেলে- সাঁই সাঁই শব্দ শুনি তার;
এক-দুই-তিন-চার-অজস্র-অপার-
----------------------------------------
-----------------------------------------
মনে প'ড়ে কবেকার পাড়াগার অরুণিমা স্যানালের মুখ;
উড়ুক উড়ুক অণুদা আপনার ছবি ব্লগ সরবে উড়ুক--------
----

----------------------------------------------------------------
বন পাহাড় আর সমুদ্র আমাকে হাতছানি দেয়
নিস্তব্ধ-গভীর রাতে এতোদূর থেকেও শুনি ইছামতীর মায়াডাক
খুঁজে ফিরি জিপসি বেদুইন আর সাঁওতালদের যাযাবর জীবন...
www.facebook.com/abdulgaffar.rony

তারেক অণু এর ছবি

হিট! প্রথম কবিতাটা নিয়ে ছবি আছে আমার, দেখি দিয়ে দিব শীঘ্রই

সত্যপীর এর ছবি

এই নেন আরেকটাঃ

হাজার বছর ধরে আমি পথ হাঁটিতেছি এই পৃথিবীর পথে,
সিংহল সমুদ্র থেকে নিশিথের অন্ধকারে মালয় সাগরে...

..................................................................
#Banshibir.

তারেক অণু এর ছবি

আপনে একটা ফিঞ্চুরাস!

মুস্তাফিজ এর ছবি

এইটা চরম

তারেক অণু এর ছবি

উৎসাহ ফিরায়ে নেন, নাহলে পীরবাবা দিতেই থাকবে একের পর এক।

তিথীডোর এর ছবি

দেঁতো হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

তারেক অণু এর ছবি
কালো কাক এর ছবি

চাল্লু

তারেক অণু এর ছবি
রু এর ছবি

কাজের কাজ করেছেন।

তারেক অণু এর ছবি
তানিম এহসান এর ছবি

হাহাহাহাহা

তারেক অণু এর ছবি
অতিথি লেখক এর ছবি

জটিল

-অয়ন

তারেক অণু এর ছবি

ধুর--

সুমিমা ইয়াসমিন এর ছবি

চরম! জীবনবাবু নির্ঘাৎ তারেক অণু হইতে চাইছিল, তাই এই কবিতা লিখছে! খাইছে

তারেক অণু এর ছবি

হ, তার আর কাম আছিল না!

জুন এর ছবি

হেহেহেহেহেহেহেহেহেহেহেহে।।। পীরবাবা লাজওয়াব। আপনার সবগুলা এক দিকে আর পীরবাবার একটাই একদিকে। বুঝেন কত কামেল পাব্লিক।। বেশিরভাগই ফেসবুকে আগে দেখেছি। তবে এখানে ছবির মান অনেক ভাল ফেবুর চেয়ে।

যদি ভাব কিনছ আমায় ভুল ভেবেছ...

তারেক অণু এর ছবি
মেঘা এর ছবি

চলুক

--------------------------------------------------------
আমি আকাশ থেকে টুপটাপ ঝরে পরা
আলোর আধুলি কুড়াচ্ছি,
নুড়ি-পাথরের স্বপ্নে বিভোর নদীতে
পা-ডোবানো কিশোরের বিকেলকে সাক্ষী রেখে
একগুচ্ছ লাল কলাবতী ফুল নিয়ে দৌড়ে যাচ্ছি

তারেক অণু এর ছবি
স্যাম এর ছবি

দেঁতো হাসি লা জওয়াব দেঁতো হাসি
এইটা আসলেই চরম

তারেক অণু এর ছবি

বলেন, এখন এইটা নিয়ে ব্যানার বানাবেন! শয়তানী হাসি

চরম উদাস এর ছবি

হয় নাই, এর সাথে সুকুমার এর হুঁকো মুখো হ্যাংলা কবিতা যাবে

থপ্ থপ্ পায়ে সে নাচ্‌ত যে আয়েসে,
গালভরা ছিল তার ফুর্তি,
গাইতো সে সারাদিন 'সারে গামা টিম্‌টিম্'
আহলাদে গদ–গদ মূর্তি ৷
এই তো সে দুপুরে বসে ওই উপরে,
খাচ্ছিল কাঁচকলা চট্‌কে—
এর মাঝে হল কি ? মামা তার মোলো কি ?
অথবা কি ঠ্যাং গেল মট্‌ কে ?
হুঁকোমুখো হেঁকে কয়, "আরে দূর, তা তো নয়,
দেখছ না কি রকম চিন্তা ?

সত্যপীর এর ছবি

দিলাম আপ্নের লাইগাও একখানঃ

হাসতে হাসতে আসছে দাদা, হাসছি আমি, হাসছে ভাই,
হাসছি কেন কেউ জানে না, পাচ্ছে হাসি হাসছি তাই ।
ভাবছি মনে, হাসছি কেন ? থাকব হাসি ত্যাগ ক'রে,
ভাবতে গিয়ে ফিকফিকিয়ে ফেল্‌ছি হাসি ফ্যাক্‌ ক'রে ।
পাচ্ছে হাসি চাপতে গিয়ে, পাচ্ছে হাসি চোখ বুজে,
পাচ্ছে হাসি চিম্‌টি কেটে নাকের ভিতর নোখ্‌ গুঁজে ।

..................................................................
#Banshibir.

তারেক অণু এর ছবি
জুন এর ছবি

জব্বর হচ্চে গো। চ্রমদা আর পীরবাবা দু'জনেই পাত্থর।

যদি ভাব কিনছ আমায় ভুল ভেবেছ...

তারেক অণু এর ছবি
কল্যাণ এর ছবি

তাড়েকাণু আর স্যামাই লামা, দুইটারেই মাইর দেয়া দরকার, হু-হুমকি।

______________
আমার নামের মধ্যে ১৩

তারেক অণু এর ছবি

ভাগেন তো ! ঝামেলায় আছি০

কল্যাণ এর ছবি

ভাইগাইতো আছি, জাঁকিয়ে বসে সচল পাঠের সেই দিনগুলা সব কোথায় যে হারিয়ে গেলো মন খারাপ

ঝামেলা কিসের?

______________
আমার নামের মধ্যে ১৩

তারেক অণু এর ছবি

যাইয়েন না গো!

স্যাম এর ছবি

তাড়েকাণু রে দেন মাইর, হুমকি - যা খুশি- সাথে পাইবেন চোখ টিপি স্যামাই লামা কে? চিন্তিত তারে চিনিনা যখন - মাফ কইরা দেই চলেন দেঁতো হাসি

কল্যাণ এর ছবি

উহু

______________
আমার নামের মধ্যে ১৩

তারেক অণু এর ছবি
রংতুলি এর ছবি

জীবনানন্দ + তারেক অণু = ব্যস্ত দিনের ঝক্কিঝামেলা ভুলে এক পশলা শান্তির বাতাস!

আরো চাই! হাততালি

তারেক অণু এর ছবি
তাসনীম এর ছবি

এই পর্বও অসাধারণ লাগলো।

________________________________________
অন্ধকার শেষ হ'লে যেই স্তর জেগে ওঠে আলোর আবেগে...

তারেক অণু এর ছবি

ধন্যবাদ ভাই, আপনার জীবনে জীবনান্দের প্রভাব নিয়ে লিখুন না স্মৃতি খুঁড়ে!

অতিথি লেখক এর ছবি

এই পর্বের অনেকগুলো ছবি এবং কবিতা ফেবুতে দেখেছি। প্রতিবার এ মনে হয়েছে জীবনানন্দ দাশ মনে হয় এজাক্টলি এরকম কোন কিছু দেখেই কবিতা গুলো লিখেছিল না হলে এভাবে মিলে যায় কি করে। তাঁর প্রত্যেকটা কবিতার জন্য আপনার একটা করে ছবি আছে অথবা আপনার প্রত্যেকটা ছবি জন্য তাঁর একটা করে কবিতা আছে। চলুক পপকর্ন লইয়া গ্যালারীতে বইলাম

ইমা

তারেক অণু এর ছবি

আপনার আম্রিকার জীবন নিয়ে লেখা কবে দিবেন?

অতিথি লেখক এর ছবি

লেখার মত কিছুই পাচ্ছি না। আপাতত বোরিং লাইফ চলতেছে। মন খারাপ

মুস্তাফিজ এর ছবি

সবগুলা ছবির কালারটোন আর সাইজ একরকম হইলে ভালো হইতো।

তারেক অণু এর ছবি

ঠিক-

রু এর ছবি

খুব বেশি পছন্দ হলো।

তারেক অণু এর ছবি
অতিথি লেখক এর ছবি

বাহ্ অন্য রকম ছবি ব্লগ। ছবির সাথে কবিতা। চমৎকার!

অবিণীতা
Aubineeta

তারেক অণু এর ছবি
যুমার এর ছবি

নওয়াজেশ আহমদের রূপসী বাংলার চিত্রায়নও অদ্ভুত ভালো লেগেছিল।জীবনানন্দে জীবনের আনন্দের চেয়ে গভীর অনুভূতি বেশি টের পাই।অণুদা,বনলতা সেনকে নিয়েও একটা ছবি ব্লগ করা কী যায়?
ছবিগুলো অনন্য,অনবদ্য চলুক

তারেক অণু এর ছবি

রূপসী বাংলায় থাকার সময় তুলব যথেচ্ছ ভাবে-

ধন্যবাদ

তানিম এহসান এর ছবি

আমরা যাইনি ম’রে আজো- তবু কেবলই দৃশ্যের জন্ম হয়

চলুক! কোথাও কি একটু যাত্রা বিরতি হচ্ছে নাকি?

তারেক অণু এর ছবি

টুকটাক বিরতি!

দীপাবলি এর ছবি

চলুক

তারেক অণু এর ছবি

কি খবর, অনেক দিন পর মন্তব্য করলেন!

অতিথি লেখক এর ছবি

একটা রিকোয়েস্ট অনুদা - বিদেশের ছবিগুলোর সাথে যে কবিতাগুলো দিয়েছেন, সেই কবিতা গুলোর সাথে দেশের ছবি দিয়ে দেখবেন নাকি? মানে, দেশে এসে যখন ছবি তুলবেন, তখন জীবনানন্দের এই কবিতাগুলোও মাথা রাখবেন -

ধন্যবাদ।

-অয়ন

তারেক অণু এর ছবি

অবশ্যই, বাংলার ছবি নিয়ে আলাদা পোস্ট করব--

ফাহিম এর ছবি

অসাধারণ আইডিয়া ভাই!!

=======================
কোথাও হরিণ আজ হতেছে শিকার;

তারেক অণু এর ছবি
শেহাব এর ছবি

আহ জীবনানন্দ! বাহ তারেকাণু!

তারেক অণু এর ছবি
মেঘা এর ছবি

অপূর্ব! এটাও অপূর্ব হয়েছে।

এখানে দেখি সেই পেট মোটা ভুঁড়িওয়ালা পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট পেঁচা সোনাটাও আছে হাসি

মুগ্ধতা!

--------------------------------------------------------
আমি আকাশ থেকে টুপটাপ ঝরে পরা
আলোর আধুলি কুড়াচ্ছি,
নুড়ি-পাথরের স্বপ্নে বিভোর নদীতে
পা-ডোবানো কিশোরের বিকেলকে সাক্ষী রেখে
একগুচ্ছ লাল কলাবতী ফুল নিয়ে দৌড়ে যাচ্ছি

তারেক অণু এর ছবি

পেট মোটা ভুঁড়িওয়ালা না রেগে টং সে পালক ফুলিয়ে বসে আছে হিমের কারণে!

আলোকিতা এর ছবি

কবিতাগুলো পড়ার সময় আপনা আপনি একটা ছবি মনের মধ্যে ভেসে উঠত।একেকটা কবিতা আমার কাছে একেকটা ছবির মত।পড়ার মাঝেই বইয়ের পাতাটি মুড়িয়ে রেখে চুপচাপ ওই ছবিটা নিয়ে মনে মনে খেলা করা আমার বহু দিনের স্বভাব।স্বীকার করতে লজ্জা নেই--আপনার ছবিগুলো আমার কল্পনার ছবিগুলোর চেয়ে আরও বেশি সুন্দর,আরও বেশি রঙ্গিন।

তারেক অণু এর ছবি

আরে না না, কল্পনাকে ছাড়ানোর সামর্থ্য কারোই নেই।

অতিথি লেখক এর ছবি

সিরিজ টা অবশ্যই চলতে থাকুক তারেক ভাই।
মুগ্ধতা প্রকাশের ভাষা আমার ঠিক জানা নেই।
একটি প্রশ্ন ছিল, ছবিগুলো কি সব আপনার তোলা ?
ভালো থাকুন সবসময়!!!

তারেক অণু এর ছবি

ছবিগুলো আমার তোলা, কিন্তু কবিতাগুলো জীবনানন্দের!

শব্দহীন জোছনা এর ছবি

বাপ্রে!!!!

কবিতার সাথে ছবিতা মিলানো, অত্যান্ত কঠিন কাজ, অনেক ভালো হইছে।

সুচেতনা,
তুমি এক দূরতর দ্বীপ
বিকেলের নক্ষত্রের কাছে;
সেইখানে দারুচিনি-বনানীর ফাঁকে
নির্জনতা আছে।

এই পৃথিবীর
রণ রক্ত সফলতা সত্য;
তবু শেষ সত্য নয়।

ব্যক্তিগতভাবে এই কয়েকটা লাইন আমার অনেক পছন্দের। কিন্তু প্রথম চারটা লাইনের সাথে ছবির সামঞ্জস্যতা ঠিক ধরতে পারলাম না। যাই হোক, ছবিগুলা প্রতিটাই অনেক দুর্দান্ত তুলেছেন।শুভকামনা।

তারেক অণু এর ছবি

কিছুই না, ভেনাসকে দেখে মনে হয়েছিল সে সুচেতনা।

অতিথি লেখক এর ছবি

কবিতাগুলো যে জীবন বাবুর সেইটা আমি খুব ভালো করেই জানি, হে হে হে।
ছবিগুলো দুর্দান্ত হয়েছে!!!
রিয়েলি ফার টিথ( ফার মানে দুর, আর টিথ মানে দন্ত, একত্রে দুর্দান্ত ) গড়াগড়ি দিয়া হাসি
আন্তরিক মুগ্ধতা গ্রহন করিবেন!!!

সাফিনাজ আরজু

তারেক অণু এর ছবি

হা হা রিয়েলি ফার টিথ হো হো হো

শিমু এর ছবি

পউষের শেষ রাতে আজো আমি দেখে চেয়ে আবার সে আমাদের দেশে
পউষের শেষ রাতে নিম পেঁচাটির সাথে আসে সে যে ভেসে !

দারুন !

তারেক অণু এর ছবি

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA