ইয়োরোপ সচল সম্মিলন

হিমু এর ছবি
লিখেছেন হিমু (তারিখ: রবি, ৩০/০৮/২০০৯ - ১:০২পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:


সারাদিন রোজার পর (এখানে ১৫ ঘন্টা উপবাস করতে হয়। ভাগ্যিস উত্তরমেরুতে থাকি না) অবসন্ন মনে তসবিহ হাতে জায়নামাজে বসে উপবাসে অবসন্ন দু'টি চোখ বুঁজে খোদার ধ্যানে মগ্ন হয়েছিলাম। এমন সময় নাসারা-পাপিষ্ঠদের আবিষ্কার, সাক্ষাত ইবলিসের ডুগডুগি মোবাইল ফোনটা বেজে উঠলো।

কানে দিয়ে মনটা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠলো। মনির হোসেন ওরফে ধূসর গোধূলির ফোন।

ধূগো বলে, দোস্ত চল হয়ে যাক এক পেগ।

আমি দীর্ঘশ্বাস ফেলি। বলি, খুদার প্রেমের শরাব পিয়ে, বেহুঁশ হয়ে রই পড়ে ...।

মনির হোসেন হাসে ঠা ঠা করে। গুনাহগার শালা। তারপর বলে, বলাইয়ের বাসায় চলে আয় জলদি!

আমার মেজাজটা খিঁচড়ে যায়। হতচ্ছাড়া ধূগো আবার কাসেলে।

তসবিহ পকেটে নিয়ে টুপিটা ভাঁজ করি, তারপর ভাঁজ করি জায়নামাজ। তারপর বলাইয়ের মাকান বরাবর যাত্রা করি।

বলাইয়ের বাড়িতে পা দিয়ে চমকে উঠি। রমজানের দিনে এ কী বেশরিয়তি কাজকারবার চলছে ওখানে! বলাইয়ের হাতে বাভারিয়ার বিখ্যাত, সুস্বাদু আউগুস্টিনার এডেলষ্টফ বিয়ারের বোতল, মুখে শোভা পাচ্ছে নতুন গুনাহগারের হাসি। বুকটা ধড়াশ করে উঠলো। বাভারিয়ার বিয়ার কাসেলে কেন?

প্রশ্ন করার আগেই উত্তর মিলে যায়। তীরন্দাজ আর পুতুল। রমজানের এই পবিত্র বাতাবরণকে চিরে দু'জন বসে পড়েছেন হারমোনিয়াম আর তবলা নিয়ে। কিন্তু মিউনিখ ছেড়ে তাঁরা কেন এই ৪৭৫ কিলোমিটার দূরের কাসেল শহরে?

ভাবতে না ভাবতেই ঘরে ঢুকে দেখি সপরিবারে দুর্দান্ত আর তানবীরা তালুকদার, ৪০৫ কিলোমিটার দূরের নেদারল্যান্ডসের রটারডাম আর আইন্ডহোভেন শহর থেকে। দুর্দান্ত বাজাচ্ছেন গিটার, তানবীরা নাচছেন "ডাক্তারের ছেলে"র তালে তালে।

আর এইসব গোমরাহি ভিডিও করে চলছেন ৪৭৪ কিলোমিটার দূরের উলম শহর থেকে আগত সচল হাসিব। পাশে শ্নাপ্সের বোতল হাতে হাসিমুখে সুমন চৌধুরী।

পাক পরওয়ারদিগারের দরবারে হাত তুলে এই পাপীদের নাজাত কামনা করছি এখন। দে পানাহ দে, ইয়া এলাহি, দে পানাহ।

হারাম ছবিগুলি পরে আসবে। রয়েসয়ে।


মন্তব্য

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- পোস্টে আপত্তি জানাইলাম।
ভুলতথ্য সরবরাহের কারণে লেখকের বিরুদ্ধে ইমপিচমেন্ট প্রস্তাব আনা হলো। দলে দলে এই প্রস্তাবে সমর্থন জানাইয়া সত্যের পথে আলোর সন্ধানে সহায়তা করুন।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

হিমু এর ছবি

এই বাতিলের শক্তিকে রুখে দাঁড়ান। দুষ্টের প্ররোচনায় কান দেবেন না।



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

অছ্যুৎ বলাই এর ছবি

পোস্টে আপত্তি জানাইলাম।

ইমপিচমেন্টের প্রস্তাবে সমর্থন।

---------
চাবি থাকনই শেষ কথা নয়; তালার হদিস রাখতে হইবো

হাসিব এর ছবি

উদ্দেশ্যমূলকভাবে কিছু পরহেজগার ব্লগারের এরকম চরিত্রহানির নিন্দা জানাই ।
লেখককে অচিরেই ইমপিচ মেরে দেয়া হৌখ ।
হাজেরানে মজলিশের পক্ষ থেকে বিশিষ্ট আলেম ধুগোকে সবার পক্ষ থেকে এখানে আনুষ্ঠানিক আপত্তি জানানোয় লাল সালাম ।

সুমন চৌধুরী এর ছবি

ব্যপক আপত্তি জানানো হৈল.....



অজ্ঞাতবাস

তানবীরা এর ছবি

সম্মানিত ব্যক্তিদের ব্যাপক সম্মানহানিতে আক্রান্ত বোধ করছি । চরম আপত্তি জানানো হইলো ।
অনাস্থা প্রস্তাবে সমর্থন দেয়া হলো ।

---------------------------------------------------------
রাত্রে যদি সূর্যশোকে ঝরে অশ্রুধারা
সূর্য নাহি ফেরে শুধু ব্যর্থ হয় তারা

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

রেজওয়ান এর ছবি

আমি ইউরোপ ছাড়ার পর শেষ পর্যন্ত হইল সম্মিলন (যার কথা বহু দিন ধরে শুনছিলাম)। তীব্ব পেতিবাদ জানাইলাম। ছবি দিলে রিকনসিডার হবে।

পৃথিবী কথা বলছে আপনি কি শুনছেন?

সাইফ তাহসিন এর ছবি

গড়াগড়ি দিয়া হাসি পুস্ট একখান দিসেন হিমুদা, আমার খাবার উঠে এসে বিষম খাওয়ার অবস্থা, পারেন ও আপনে। ঘোড়ার ডিমের মারিকায় থাকি, নাহইলে আমিও ডাক পাইতাম মন খারাপ . জটিল এক পোস্ট, মাগার ৩টা এক ভোটের ব্যাপারটা ঠিক বুঝতে পারলাম, এইটাও কী একটা রসিকটার অংশ?? ইয়ে, মানে... , বাসা পাল্টাইতেসি, তাই মাথা ঠিক পুরাপুরি কাজ করিতেছে না।

তারপরেও বলে যাই, এখন ও থামতে পারতেসি না, কঠিন একখানা পোস্ট। হিমুদা নমস্য,

খুদার প্রেমের শরাব পিয়ে, বেহুঁশ হয়ে রই পড়ে
গড়াগড়ি দিয়া হাসি

=================================
বাংলাদেশই আমার ভূ-স্বর্গ, জননী জন্মভূমিশ্চ স্বর্গাদপি গরিয়সী

মণিকা রশিদ এর ছবি

"তসবিহ পকেটে নিয়ে টুপিটা ভাঁজ করি, তারপর ভাঁজ করি জায়নামাজ। তারপর বলাইয়ের মাকান বরাবর যাত্রা করি।"
চিন্তিত

........................................
......সবটুকু বুঝতে কে চায়!

----------------------------------------------
We all have reason
for moving
I move
to keep things whole.
-Mark Strand

শাহেনশাহ সিমন [অতিথি] এর ছবি

আমাদের আড্ডাতেও এই বেশরীয়তের চর্চা আনাতে হবে দেকছি চোখ টিপি

কীর্তিনাশা এর ছবি

রোজা রমজানের দিনে এই সব ইমপিচমেন্ট চইলবে না।

হিমু ভাই আরো কাহিনী আর ছরি নিয়া এগিয়ে এসে দো জাহানের অশেষ নেকি হাসিল করুন।

বি: দ্র : - পোস্ট পইড়া হাসতে হাসতে পেটে ব্যাথা শুরু হইছে গড়াগড়ি দিয়া হাসি

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

ধুসর গোধূলি এর ছবি
মামুন হক এর ছবি

মজারু! ছবির অপেক্ষায় রইলাম ।

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

আমি গত রাইত থিকা তোবারকের লিস্টিডা চাইতেছি। হাসিব ভাই বললো সেইটা দিতে হইলে নাকি বহি লেখিতে হইবে। শুনেই তো আমার ক্ষিধা লেগে গেছে। আবার প্রকারান্তরে শুনলাম ভেড়া জবেহ হয়েছে... এইসব তো এতো দূর থেকে আর সহ্য করা যাচ্ছে না

বলি আপনাদের কি বিদেশে এইসব মৌজ মাস্তি করার জন্য পাঠানো হইছে? কাজ কাম লেখাপড়া নাই?

আড্ডা কি বারো ঘন্টাতেই শেষ হইছে নাকি এখনো চলতেছে? ছবি তাড়াতাড়ি দেন...
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

সৈয়দ আখতারুজ্জামান এর ছবি

হিমুভাই সালাম।
বুঝলাম অনেক কিছুই মিস করিয়াছি এবং করিতেছি। পোস্টে দারুণ মজা পাইছি। ছবি দেখার অপেক্ষায় থাকলাম।

অবাঞ্ছিত এর ছবি

প্রথম লাইন পড়ে একটু ভয় পেয়ে গেছিলাম... ভাবলাম আপনার অ্যাকাউন্ট আবার হ্যাক্ড হইলো কিনা :] ... যা হোক..

ছবি চাই :]

__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

উজানগাঁ এর ছবি

মজা পাইলাম। এই ধরনের লেখা আপনারে দিয়াই সম্ভব। হাসি
আপনার করা ব্যানারটা অনেক সুন্দর হইছে। আহ্ আবুল হাসান....

সুহান রিজওয়ান এর ছবি

নাউজুবিল্লাহ !! শরীয়ত বিরোধী এই পুস্টে দিক্কার। তয় বাভারিয়ান মদ্য সদ্য ক্রয় অবস্থায় পাঠাইলে আবার বিবেচনা কর্মু...
---------------------------------------------------------------------------
- আমি ভালোবাসি মেঘ। যে মেঘেরা উড়ে যায় এই ওখানে- ওই সেখানে।সত্যি, কী বিস্ময়কর ওই মেঘদল !!!

মুস্তাফিজ এর ছবি

তীব্র প্রতিবাদ এরকম না জানিয়ে সম্মিলন করার জন্য। দিন পনের পরে করলে কী হইতো?

...........................
Every Picture Tells a Story

হিমু এর ছবি
মুস্তাফিজ এর ছবি

আশা আছে ঈদের সময় স্পেন ঘোরার (যদি কম দামে টিকিট পাই)

...........................
Every Picture Tells a Story

পান্থ রহমান রেজা এর ছবি

সংযম বাদ দিয়া এইসব বেশরিয়তি কাজের নিন্দা জানাইলাম!
.................................................................................................

আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ ব'সে অপেক্ষা করার সময় আছে।

ফিরোজ জামান চৌধুরী এর ছবি

আমি এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

আমি এই পোস্টে 'না ভোট' দিচ্ছি।
তবে জলপানের বিষয়টি সমর্থনযোগ্য।

ঝিনুক নীরবে সহো, নীরবে সয়ে যাও
ঝিনুক নীরবে সহো, মুখ বুঁজে মুক্তো ফলাও।

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

পোস্ট ও মন্তব্যসমূহ এবং রেটিং দেখে আমি পুরাপুরি বিভ্রান্ত। রসিকতা নয়তো?

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- মোটেও না পিপিদা। আপনি কি ভাবছেন এতোগুলা নিষ্পাপ জনগণ হুদাহুদিই পাপিষ্ঠ হিমুর বিরুদ্ধে ইমপিচমেন্টের প্রস্তাব এনেছে? বিভ্রান্ত হবেন না। এইটা ষড়যন্ত্র, মহা ষড়যন্ত্র!
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

তানবীরা এর ছবি

হিমু আমাদের মান সম্মানের ওপর আঘাত করে পোষ্ট দিলো আর তাকে আপনি রসিকতা মনে করছেন পিপিদা ? গরীব বলে কি আমাদের মান - সম্মান থাকতে নেই !!!!
---------------------------------------------------------
রাত্রে যদি সূর্যশোকে ঝরে অশ্রুধারা
সূর্য নাহি ফেরে শুধু ব্যর্থ হয় তারা

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

তাহলে তো আমারো ১ দেয়া দরকার মনে হচ্ছে চোখ টিপি

রমজানুল মোবারকের পবিত্রতা রক্ষা কমিটি ( সভাপতি : আরিফ জেবতিক এর ছবি

লা হাওলা অলা কুয়াতা...।

এইসব বেশরিয়তি পোস্ট অবিলম্বে প্রথম পাতা থেকে সরিয়ে দিয়ে রমজানুল মোবারকের পবিত্রতা রক্ষা করার জোর দাবী জানাই।

রোজারিও এর ছবি

পোস্টটা প্রথম পাতা থেকে সরানোর কি দরকার! পর্দা দিয়ে ঢেকে দিলেই তো হয়! চোখ টিপি

দময়ন্তী এর ছবি

আহা ছবি৷ মুভি সেসব কোথায়?
----------------------------------------------
"নিভন্ত এই চুল্লিতে মা
একটু আগুন দে
আরেকটু কাল বেঁচেই থাকি
বাঁচার আনন্দে৷'

-----------------------------------------------------
"চিলেকোঠার দরজা ভাঙা, পাল্লা উধাও
রোদ ঢুকেছে চোরের মত, গঞ্জনা দাও'

যুধিষ্ঠির এর ছবি

যাহারা এই লেখায় প্রতিবাদ করিতেছেন, আর যাহারা সমর্থন দিতেছেন, তাহাদের সবার উদ্দেশ্যে একটি নিবেদন। এই দুনিয়ায় আপনাদের ভালো মন্দ দুইটাই দেওয়া হইছে, বাইছা নেওয়ার দায়িত্ব বান্দার নিজের।

আপনার দিলে যদি কমেট কালির দাগ থাকে, তাইলে আপনে শুধু এই লাইনগুলি দেখবেন:

ধূগো বলে, দোস্ত চল হয়ে যাক এক পেগ।

মনির হোসেন হাসে ঠা ঠা করে। গুনাহগার শালা। তারপর বলে, বলাইয়ের বাসায় চলে আয় জলদি!

আমার মেজাজটা খিঁচড়ে যায়। হতচ্ছাড়া ধূগো আবার কাসেলে।

বলাইয়ের হাতে বাভারিয়ার বিখ্যাত, সুস্বাদু আউগুস্টিনার এডেলষ্টফ বিয়ারের বোতল, মুখে শোভা পাচ্ছে নতুন গুনাহগারের হাসি। বুকটা ধড়াশ করে উঠলো। বাভারিয়ার বিয়ার কাসেলে কেন?

প্রশ্ন করার আগেই উত্তর মিলে যায়। তীরন্দাজ আর পুতুল। রমজানের এই পবিত্র বাতাবরণকে চিরে দু'জন বসে পড়েছেন হারমোনিয়াম আর তবলা নিয়ে। কিন্তু মিউনিখ ছেড়ে তাঁরা কেন এই ৪৭৫ কিলোমিটার দূরের কাসেল শহরে?

ভাবতে না ভাবতেই ঘরে ঢুকে দেখি সপরিবারে দুর্দান্ত আর তানবীরা তালুকদার, ৪০৫ কিলোমিটার দূরের নেদারল্যান্ডসের রটারডাম আর আইন্ডহোভেন শহর থেকে। দুর্দান্ত বাজাচ্ছেন গিটার, তানবীরা নাচছেন "ডাক্তারের ছেলে"র তালে তালে।

আর এইসব ভিডিও করে চলছেন ৪৭৪ কিলোমিটার দূরের উলম শহর থেকে আগত সচল হাসিব। পাশে শ্নাপ্সের বোতল হাতে হাসিমুখে সুমন চৌধুরী।

হারাম ছবিগুলি পরে আসবে।

-----------------------------------------------------------------------

আপনার দিল যদি খাস হয়, তাইলে আপনে এইখানে শুধু এই লাইনগুলি দেখবেন, বাকি সবকিছু আপনার দৃষ্টিসীমা থেইকা গায়েব হয়ে যাবে:


সারাদিন রোজার পর (এখানে ১৫ ঘন্টা উপবাস করতে হয়। ভাগ্যিস উত্তরমেরুতে থাকি না) অবসন্ন মনে তসবিহ হাতে জায়নামাজে বসে উপবাসে অবসন্ন দু'টি চোখ বুঁজে খোদার ধ্যানে মগ্ন হয়েছিলাম। এমন সময় নাসারা-পাপিষ্ঠদের আবিষ্কার, সাক্ষাত ইবলিসের ডুগডুগি মোবাইল ফোনটা বেজে উঠলো।

কানে দিয়ে মনটা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠলো। মনির হোসেন ওরফে ধূসর গোধূলির ফোন।

আমি দীর্ঘশ্বাস ফেলি। বলি, খুদার প্রেমের শরাব পিয়ে, বেহুঁশ হয়ে রই পড়ে ...।

তসবিহ পকেটে নিয়ে টুপিটা ভাঁজ করি, তারপর ভাঁজ করি জায়নামাজ। তারপর বলাইয়ের মাকান বরাবর যাত্রা করি।

বলাইয়ের বাড়িতে পা দিয়ে চমকে উঠি। রমজানের দিনে এ কী বেশরিয়তি কাজকারবার চলছে ওখানে!

পাক পরওয়ারদিগারের দরবারে হাত তুলে এই পাপীদের নাজাত কামনা করছি এখন। দে পানাহ দে, ইয়া এলাহি, দে পানাহ।

রয়েসয়ে।

এখন যার যার বিবেচনা তাদের দিল খাস না কি নাখাস।

ভুতুম এর ছবি

ছবিগুলা যাতে শরিয়তী না হয়, এই দাবী জানায়ে গেলাম।

-----------------------------------------------------------------------------
সোনা কাঠির পাশে রুপো কাঠি
পকেটে নিয়ে আমি পথ হাঁটি

-----------------------------------------------------------------------------
সোনা কাঠির পাশে রুপো কাঠি
পকেটে নিয়ে আমি পথ হাঁটি

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

এই পোস্টটা কি প্রোমো টাইপের কিছু? ছয় ভোটের গড়ে ১ রেটিং, আপত্তিকর অভিযুক্ত... বুঝলাম না ব্যাপার-স্যাপার।

মনে পড়ে গেল, কিছুদিন আগে জয়া আহসানের হারিয়ে যাওয়া নিয়ে বেশ মাতামাতি হলো কয়দিন পত্রিকায়। পরে দেখা গেল ওটা ছিল বাংলালিংকের একটা বিজ্ঞাপনের প্রচারণার অংশবিশেষ। এর আগেও দুই একটা সিনেমার পোস্টারে এমনটা দেখা গেছে।

তা, জনমনে ঝড় তোলার জন্য এই পোস্টেও কি তেমন কিছুর আশ্রয় নেয়া হয়েছে? চিন্তিত

অনটপিক: লেখাটা মজা লাগল অনেক।

দময়ন্তী এর ছবি

খিক খিক হাসি হাসি
আমার তো ঐগুলো লক্ষ করে মনে হল কিছু সচলের এক রেটিং নিয়ে অতিরিক্ত আতুপুতুভাব কাটানোর জন্য এইটা একটা "টীকাদান প্রকল্প'৷
--------------------------------------
"নিভন্ত এই চুল্লিতে মা
একটু আগুন দে
আরেকটু কাল বেঁচেই থাকি
বাঁচার আনন্দে৷'

-----------------------------------------------------
"চিলেকোঠার দরজা ভাঙা, পাল্লা উধাও
রোদ ঢুকেছে চোরের মত, গঞ্জনা দাও'

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

দেঁতো হাসি

মামুন হক এর ছবি

রাত্রি দ্বিপ্রহর পর্যন্ত ছবি দেখার অপেক্ষায় থেকে ক্ষিপ্ত হয়ে অবশেষে আমিও ১ ভোটের মিছিলে শামিল হলাম। তাড়াতাড়ি ছবি ভিড্যু দেখান , আর নয়তো এক ভোটটাও হাপিস হয়ে গিয়ে পড়ে রইবে শুধু লবডংকা!

অতিথি লেখক এর ছবি

অনেকদিন আগে গল্প শুনেছিলাম- "সন্ত্রাসীর গু খেয়ে পুলিশের মৃত্যূ"। পরের দিন ঐ পত্রিকায় সংশোধনী ছাপা হয়েছিল- "সন্ত্রাসীর গু খেয়ে পুলিশের মৃত্যূ" প্রকাশিত খবরে "লি" বাদ পড়ার জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখিত।

রহস্যের দ্বার উন্মোচনের অপেক্ষায়
তারেক

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- ভুটান ভাইসব, দলে দলে আসিয়া ১ ভুটান। ব্যাটা মোঢিমু আমারে দিয়া ছয় হাত বাই চাইর হাত ক্ষেত্রফলের এক বায়বীয় তোষকে যান্ত্রিকভাবে বায়ু ইনসার্ট করাইছে। পুরা একশ তেরটা যাতা দিচে হৈছে পাম্প মেশিনে। এই পাম্পিং কইরা আমার সারা গতরে ব্যথা। নড়তেও পারি না, চড়তেও পারি না। সিধা হইলে বাঁকা হৈতে পারি না, বাঁকা হইলে সিধা হওয়া অসম্ভব। মাণ্ডার তেল খুঁজতাছি এখন। সমস্যা হইলো, বদ্দারে তেলের কথা জিগাইতেই কয়, "হ"।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

কীর্তিনাশা এর ছবি

না হামি ফাঁছ থারা ধিমু দেঁতো হাসি

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

হাসিব এর ছবি

সচলে উপুর্যুপুরি বেধড়ক ১ উৎসবের কারনে এই পোস্টি স্মরণীয় হয়ে থাকবে ।

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

ইয়ে, গত ১৪ অগাস্টের একটা পোস্ট মনে হয় রেকর্ডের শীর্ষে চোখ টিপি

হিমু এর ছবি

হাবিবে জাহান রাসূলে খোদার চলার পথেও কাঁটা বিছিয়ে রাখতো কিছু পাপিষ্ঠ। মুমিন ব্লগার এইসব তুচ্ছ দুনিয়াবি ১-২ কে পরওয়া করে না।



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

দুর্দান্ত বাজাচ্ছেন গিটার, তানবীরা নাচছেন "ডাক্তারের ছেলে"র তালে তালে।

এই লাইনের জন্যই ৫ তারা।

মুশফিকা মুমু এর ছবি

লোল ৯টা ১ ভোট --- আমি ১০ করে দেই গড়াগড়ি দিয়া হাসি
নাচ, গানের ভিডিও দেখতে চাই,
তবে এটা বুঝতে পারলাম না, "তানবীরা নাচছেন "ডাক্তারের ছেলে"র তালে তালে।" ??

------------------------------
পুষ্পবনে পুষ্প নাহি আছে অন্তরে ‍‍

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

ছবি কই?

হিমু এর ছবি
হিমু এর ছবি

আপডেটের আখবার দিয়ে যাই। মনির হোসেন (মিম-হা) ওরফে ধূসর গোধূলি তার বকেয়া ২৮ ইউরো ৪০ সেন্ট থেকে ২৫ ইউরো ২ সেন্ট শোধ করে দিয়ে গেছে। বাকি রইলো ৩ ইউরো ৩৮ সেন্ট।



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

মিম-হা
আপনে আসলেই জিনি(য়া)স! হো হো হো
[ নিজেকে আবার 'জিনিয়া' নামের কোনো মেয়ের মনে কইরেন না চোখ টিপি ]

হিমু এর ছবি
মামুন হক এর ছবি

ধূগোর নাম আবার মনির হোসেন হৈল কীভাবে? তার ফেসবুকের নাম তো আসাদুজ্জামান, মেট্রিক সার্টিফিকেটেও তো তাই লেখা আছে শুঞ্ছি।

হিমু এর ছবি
ধুসর গোধূলি এর ছবি

- তোর কপালে খারাবি আছে আবুল হোছেন (আব-হা)। পাই টু পাই তোরে হিসাব বুঝাইয়া দেওয়া হৈছে। অবশ্য তোর যে চরিত্র (পুরাই য়ূনুইচ্চার মতো) টাকা পাইয়াও সারাছার অস্বীকার করলি। ভাগ্যিস বলাইনি তোর জারিজুরি ধরে ফেলছিলেন। নাইলে তো আমারে আরও কয়বার জানি তোর টেকা শোধ করতে হৈতো! বংশ থেকে বংশান্তরে এই টেকা শোধ কইরাই যাওয়া লাগতো!

মানির মান আল্লায় রাখছে। তোর হিসাব কইমা অন্তত তিন টেকায় আইসা ঠেকছে।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

হাসিব এর ছবি

এইজন্যই কৈছিলাম হিমুর ভাগের মুরগীর রানটা এইভাবে হাপিস করে দিও না । এখন বোঝো ঠেলা ।

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- আমি কই হাপিস করলাম, করলো তো দুর্দান্ত'দা। আর যেই না রান। একে তো মুরগী মরা তায় আবার ঠ্যাঙে পোলিও! দুর্দান্ত'দা গেস্ট মানুষ, কাহইছে তো কী হৈছে? এইটার জন্য হামদু এরকম করলো!!

তবে যেখানেই যাই কিছু হয় আবুল হোছেন খালি আমারে দুষে। মন খারাপ
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

হিমু এর ছবি

৩ ইউরো ৩৮ সেন্ট। সময় থাক্তে থাক্তে দিয়া দে। নাইলে কিন্তু ঘরের চাল উড়াইয়া লইয়া যামু। ক্ষুদ্রঋণের পাল্লায় পড়েছো মনিরা, হুঁ হুঁ!



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- আয় আবুইল্যা, দেই তোরে।

তবে দোস্ত, আজকের জার্নিটা মোটেও খারাপ হয় নাই যতোটা খারাপ হবে বলে ভাবছিলাম। সোয়েস্ট থেকে একজন উঠলো, কোলন পর্যন্ত। মজার ব্যাপার হলো, তার স্টুটগার্টগামী ট্রেইন আর আমার বনগামী ট্রেইন ছাড়বে প্রায় একই সময়ে, তাও চল্লিশ মিনিট পর।

কিছু কিছু সময় শালার খুব দ্রুতই শেষ হয়ে যায়! মন খারাপ
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

তীরন্দাজ এর ছবি

আমি ছুডু মানুষ, আমার কুনু দোষ নাই! সব দোষ ধুসরের!
**********************************
কৌনিক দুরত্ব মাপে পৌরাণিক ঘোড়া!

**********************************
যাহা বলিব, সত্য বলিব

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- তীরুদা, শেষমেশ আপনিও আমার কান্ধে দুষ দিলেন? মন খারাপ
উঠালে ভাগওয়ান, উঠালে। আমারে থুইয়া বাকি সবকো উঠালে। মন খারাপ
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

আমারে থুইয়া বাকি সবকো উঠালে।
হো হো হো

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

হো হো হো

তানবীরা এর ছবি

মানে, উঠাইলে তোমারে উঠাক, আমারে ক্যান? আমার ছেলে মেয়ে বিয়ে দিতে হবে, নাতি পুতি পালতে হবে। তোমার কি আছে শুনি ?
---------------------------------------------------------
রাত্রে যদি সূর্যশোকে ঝরে অশ্রুধারা
সূর্য নাহি ফেরে শুধু ব্যর্থ হয় তারা

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

তানবীরা এর ছবি

তাইলে মাফ কইরা দিলাম। যাও মুড়ি খাও
---------------------------------------------------------
রাত্রে যদি সূর্যশোকে ঝরে অশ্রুধারা
সূর্য নাহি ফেরে শুধু ব্যর্থ হয় তারা

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

ধুসর গোধূলি এর ছবি
তীরন্দাজ এর ছবি

সময় থাকবে ভালা হইয়া যাও ধুসর!
**********************************
কৌনিক দুরত্ব মাপে পৌরাণিক ঘোড়া!

**********************************
যাহা বলিব, সত্য বলিব

অতিথি লেখক এর ছবি

কোথা দিয়ে যে পুরো দুটো দিন চলে গেলো টেরই পেলাম না, খাওয়া - আড্ডা আর গান বাজনার মধ্যে দিয়ে নিমেষেই বুঝি সময়গুলো পেরিয়ে গেলো। আন্তরিকতা ও আপ্যয়নের কমতিতো ছিলই না বরং কোনটা বেশি ছিল আর কোনটা কম তা নিরুপনের চিন্তায় যখন মগ্ন ছিল ঠিক তখুনি নজের এলো হিমুর পোষ্ট। কলমের দু খোঁচায় দুর্দান্তের হাতে গীটার ধরিয়ে দিয়ে বউকে নাচিয়ে ছাড়লেও এই অধমের এতো টুকু আঁচড় দেয় নি (মনে মনে হিমুকে ধন্যবাদ না দিয়ে পারছি না)।

সচলদের সুন্দর আড্ডা আমরা অচলরাও দারুন উপভোগ করেছি। ধন্যবাদ সবাইকে সেজন্য।

দুলাল

হিমু এর ছবি

এক মুমিনের দুঃখ আরেক মুমিনই কেবল মেহসুস করতে পারেন। দুলাল ভাইকে উত্তম জাঝা!



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

খেকশিয়াল এর ছবি

কিন্তু ফটু কো?

------------------------------
'..দ্রিমুই য্রখ্রন ত্রখ্রন স্রবট্রাত্রেই দ্রিমু!'

-----------------------------------------------
'..দ্রিমুই য্রখ্রন ত্রখ্রন স্রবট্রাত্রেই দ্রিমু!'

সুবিনয় মুস্তফী এর ছবি

দুর্দান্ত গিটার বাজায় কবে থেকে?!
-------------------------
হাজার বছর ব্লগর ব্লগর

হিমু এর ছবি

যবে থেকে আমি খুদার প্রেমের শরাব পান করা শুরু কর্লাম দেঁতো হাসি ...



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

পুতুল এর ছবি

প্রোষ্ট হযরত। আলহামদু লিল্লাহ।
**********************
ছায়া বাজে পুতুল রুপে বানাইয়া মানুষ
যেমনি নাচাও তেমনি নাচি, পুতুলের কি দোষ!
!কাঁশ বনের বাঘ!

**********************
ছায়াবাজি পুতুলরূপে বানাইয়া মানুষ
যেমনি নাচাও তেমনি নাচি, পুতুলের কী দোষ!
!কাশ বনের বাঘ!

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।