ভূমিকম্প

মামুন হক এর ছবি
লিখেছেন মামুন হক (তারিখ: বিষ্যুদ, ০৪/০৩/২০১০ - ১১:০০পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

বাপ হবার পর থেকে কাজ-কারবার অনেক কমিয়ে দিয়েছি। লাঞ্চের পরে অফিসে যাই , ঘন্টাকয়েক হা পিত্যেশ করে আবার ঘরে ফিরে আসি। কী করবো মন যে পড়ে থাকে ঘরে, মেয়েদুইটার কাছে। সবাই বলে যমজ ছানাপোনা মানেই ডাবল ব্লেসিং, ডাবল জয়, ডাবল ব্লিস...কথা ঠিক তবে এর সাথে আরেকটা অনিবার্য সত্য কথা যোগ করতে ভুলে যায়। সেটা হলো যমজ মানে ডাবল ট্রাবল। তো এই আনন্দময় দ্বিগুণ উৎপাতের দৌরাত্মে কোন কাজই সময়মতো করা যায়না। মানে চেনা বাস চেনা রুটের রুটিন বদলে সব ওলট পালট। এই লেখাটাতেই হাত দিলাম প্রায় চার ঘন্টা আগে, এখন পর্যন্ত ঠুক ঠাক করেই যাচ্ছি শেষ করার মতো একটানা ফুরসত মিলছেনা।

লেখার মূল প্রসঙ্গে যাই। বউ আর আমি মিলেঝিলে নাইট ওয়াচম্যানের কাজটা সারি। আজ ভোররাতে আমাকে উঠিয়ে সে ঘুমাতে গেল। মুহুর্মুহু ন্যাপি বদলানো, খাওয়ানো, কান্না থামাতে কোলে নিয়ে হাঁটা, ওদের কানের কাছে বাংলায় আগডুম বাগডুম বলতে বলতে ঘন্টা কয়েক কেটে গেল। তারপর দেখি দুইজনেই গভীর ঘুমে, অপার নৈঃশব্দ চারপাশে। আমি গিয়া এক কাপ চা বানাই, তারপর ব্রাজিল আর আয়ারল্যান্ডের খেলাটা ডাউনলোড করে দেখতে বসি। কাকা আর মামারা আয়ারল্যান্ডকে বেশ চেপে ধরেছে, গোল হয় হয় ঠিক তখনই শান্তির নিস্তব্ধতাকে খান খান করে দেয় দুই জনের একজন, ত্রাহি ত্রাহি চিৎকারে। আবছা অন্ধকারে ঠাহর করতে পারলাম এটা কি এষা না আয়লা। যাক একজন হইলেই হয়, আমরা আমরাইতো। ন্যাপি চেক করে দেখলাম ঘটনা সিরিয়াস কিছুনা, সামান্য একটু হিসি করে দিয়েছে, আর তাতেই ঘরবাড়ি সব মাথায়। না বদলানো পর্যন্ত থামবেনা, তাই কোলে নিয়ে উঠে দাঁড়ালাম। দাঁড়াতেই চারপাশ কেমন যেন দুলে উঠলো। ভাবি শরীর মহাশয় কি আজকাল অল্পতেই কাবু হয়ে যাচ্ছে? না হয় ঘুম-বিশ্রামের ভীষণ অনিয়ম যাচ্ছে মাসখানেক ধরে, তাতেই এভাবে মাথা ঘুরে উঠবে এই ঘোর জওয়ানীতে? একটু তাল সামলে চারপাশে তাকাতেই দেখি ঘটনা খারাপ। শুধু আমি না পুরো ঘরই দুলছে।

দুলুনির মাত্রা বাড়তেই থাকলে বুঝে নিলাম এ যে সাক্ষাৎ ভূমিকম্পের হামলা! আস্তে আস্তে পুরো বিল্ডিং কাঁপিয়ে ভূমিকম্প তার দাঁত নখ বের করতে লাগলো। বসার ঘরের বুকশেলফ , রান্নাঘরের কাবার্ড থেকে জিনিষপত্র হুড়মুড়িয়ে পড়তে শুরু করলো। তাইওয়ানে অনেকদিন থাকার কারণে ভূমিকম্পের সাথে আমাদের দেখা-সাক্ষাৎ মোটামুটি নিয়মিতই বলা যায়। অন্যান্য দিন হলে তেমন আমলে নিতাম না, কিন্তু এখন যে আমার ছাতার নিচে দুই দুইটা ছোট্ট পরী। ওদের দিকে তাকাতেই ভয়ে হাত-পা ঠাণ্ডা হয়ে এল। স্ত্রীর ঘুম ভাঙলে পড়িমরি করে ছুটে আসে। আমি বাচ্চাদের জড়িয়ে ধরে চুপচাপ বসে আছি, সে এসে আমাদের জড়িয়ে ধরে। কারো মুখে কোন কথা নেই, বাচ্চাদেরও কান্না থেমে গেছে। বেড়ালটা কি বুঝে এক লাফে ফ্রিজের মাথায় চড়ে বসে আমাদের দেখে গোল গোল চোখ করে। স্যুভেনীর পড়ে ভাঙছে, মোটা মোটা বইগুলো সশব্দে জমিনে নাজিল হচ্ছে, কিন্তু এগুলো ছাপিয়ে সিলিংয়ের দিকে তাকাতেই দেখলাম ছোটোখাটো ঝাড়বাতিটা বিপজ্জনক ভাবে পেণ্ডুলামের মতো দুলছে। কী করবো বুঝতে পারছিলাম না, মাথা কাজ করছিলনা একদম।

জমিন আস্তে আস্তে শান্ত হতে লাগলো। বোধহয় মিনিট কয়েক পর সব শুনশান। আমরা তবুও আফটার শকের ভয়ে উঠলাম না। কপাল ভালো মেঝেতে কাচের জিনিষ কিছু ভেঙ্গে পড়ে নেই। আমরা জামাই-বউ একে অন্যকে জোরকরা নার্ভাস হাসি উপহার দিলাম।

বাচ্চাদের দিকে তাকিয়ে দেখি ভূমিকম্পের একটানা দুলুনিতে তারা নিজের ছোট্ট বিছানায় গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন। আমরা ভয়ে আধমরা আর তারা মুফতে দোলান্তিস খেয়ে ঘুমের দেশে পাড়ি জমিয়েছে। দেখে ফিলিপস বাত্তির বিজ্ঞাপণের মতো করে বলতে ইচ্ছা হলো, অলওয়েজ লুক অ্যাট দ্য ব্রাইট সাইড অভ লাইফ হাসি


মন্তব্য

কাকুল কায়েশ এর ছবি

হাহাহা......জোশ!
আপনার ডাবল ট্রাবলকে আমার অনেক আদর দিয়েন।

=======================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

মামুন হক এর ছবি

অনেক অনেক ধন্যবাদ কা.কা. হাসি

মুস্তাফিজ এর ছবি

আবছা অন্ধকারে ঠাহর করতে পারলাম এটা কি এষা না আয়লা। যাক একজন হইলেই হয়, আমরা আমরাইতো।
হাসি

এষা আর আয়লার জন্য ভালবাসা

...........................
Every Picture Tells a Story

মামুন হক এর ছবি

ভালোবাসা কৃতজ্ঞতার সাথে গ্রহণপূর্বক চতুর্গুণে বর্ধিত করে আকাশের ঠিকানায় আপনাদের দিকে পাঠানো হলো হাসি

নাশতারান এর ছবি

আমরা ভয়ে আধমরা আর তারা মুফতে দোলান্তিস খেয়ে ঘুমের দেশে পাড়ি জমিয়েছে।

হো হো হো

মিনিট কয়েকের কাঁপুনি হলে তো ভয়াবহ অবস্থা। ভূমিকম্পের সময় অবশ্য টাইম ডাইলেশন হয়। মনে হয় অনন্তকাল ধরে দুলছি।

_____________________

আমরা মানুষ, তোমরা মানুষ
তফাত শুধু শিরদাঁড়ায়।

মামুন হক এর ছবি

তাই হবে, আসলেই মনে হচ্ছিল অনন্তকাল ধরে ধুম ধারাক্কা চলছে। চিত্ত দূর্বল হলে যা হয় আর কি ।

অতিথি লেখক এর ছবি

অভিনন্দন আপনাকে হাসি

- অসামাজিক

মামুন হক এর ছবি

ধন্যবাদ আপনাকে হাসি

ওয়াইল্ড-স্কোপ এর ছবি

মামু, তোমার দুঃখে একটা ইন্টারেস্টিং খবর দেই - গত সোমবারে (১ তারিখে) তাইওয়ানে একটা "ভূমিকম্প মাছ" ধরা পড়ে - মাছের এই নামের কারণ - ভূমিকম্প হলেই নাকি শুধু এই মাছ ধরা পড়ে। আমি জানলাম কেমনে? চিন্তিত খবরের জন্য নিম্নের ইউটিউব ভিডিও দ্রষ্টব্য (ভিডিওটা ১ তারিখেই আপ্লডেড):

এরপর ৩ তারিখেই এই অবস্থা -

গত অক্টোবরেও নাকি ভুমিকম্পের আগে এই মাছ ধরা পড়ছিল অ্যাঁ
এতকিছু দেইখা "২০১২ কায়ামত" বিশ্বাসীরা আবার জাইগা উঠতাসে ইয়ে, মানে... -

মামুন হক এর ছবি

মামা তুই এইসব কই পাস? আমি ভূমিকম্প মাছের কথা শুনছি বিশ্বাস করি নাই। এখনতো দেখি ঘটনা সত্য। আর শোন ২০১২ এর আগেই মামা-মামী-মামতো বোনেগো দেইখা যাইতে ভুলিস না জানি। ভূমিকম্প মাছের দোপেয়াজা খাওয়ামু তুই আইলে হাসি

ওয়াইল্ড-স্কোপ এর ছবি

মামু, আমি অহন পরীক্ষা লইয়া ব্যাপক ক্যাতরাইতাসি - এই কইরা নিজের বাড়িতেই যাওয়া হয় নাই বছর তিনেক। সারাদিন রাত অফিসে পইরা থাইকা পড়া-লেখার ফাঁক ফোকরে ইউটিউবই একমাত্র বিনোদন - ছাই-পাশ যা আসে তাই দেখি। তয় ভূমিকম্প মাছের দোপেয়াজার প্রস্তাব বেশ লোভনীয় লাগতাসে - পরীক্ষা শেষে সিরিয়ালি বউ সহ বিশ্ব ভ্রমণের একখান ট্রাই দিমুনে মামু বাড়ি সহ - তখন কিন্তুক দাওয়াত ফিরাইয়া লইতে পারবা না। দেঁতো হাসি
auto

মামুন হক এর ছবি

মামু , আমি তাইওয়ানে আর খুব বেশিদিন নাই। সুতরাং নৌকায় উঠে বস প্রথম সুযোগেই হাসি

দুর্দান্ত এর ছবি

দেখতে তো ভোলার ছুরি মাছ এর মত। টেস কিমুন?

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- আমার কাছে তো চাপিলা মাছের মতো লাগলো। তাইওয়ানের চাপিলা মাছ। কিংবা চাপিলা মাছ, তাইওয়ান ভার্সন।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

ওয়াইল্ড-স্কোপ এর ছবি

এই মাছের প্রচলিত নাম রিবন মাছ, তাইওয়ানের লিজেন্ড অনুসারে সেইখানে এই মাছের নাম ভূমিকম্প মাছ (ইদানিংকালের মধ্যে ২০০৬, ২০০৭, ২০০৯, ২০১০এ প্রতিবারই একই ঘটনা) - এই মাছ বঙ্গোপসাগরেও দেখা গেছে, পরেরবার কক্সবাজারের কোনো হোটেলে খাইতে গেলে অর্ডার দিয়া দেইখেন দেঁতো হাসি

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- কক্সবাজারের জেলেরা এই ফিতামাছ ধরে কেমনে? সৈকতে গিয়ে হাতে কুনিজাল নিয়ে পজিশন নিয়ে খাড়ায়ে থাকে, কখন ভূমিকম্প হবে? চিন্তিত
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

কাকুল কায়েশ এর ছবি

চিন্তার কথা তো? তাইওয়ানেও কি এই স্টাইলেই ধরে নাকি? চিন্তিত

=======================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

ওয়াইল্ড-স্কোপ এর ছবি

উইকি অনুযায়ী, বঙ্গোপসাগরের থেকে এই ফিতা টাইপের মাছ ধরা হইছিল - তার মানে আমগো দ্যাশে এই মাছ পাওয়ার চান্স আছে দেঁতো হাসি - এখন কন - মাছ পাওয়া গেলে হেইডা কি বাঙালি খায় না বাথটাবে জিয়াইয়া রাখে? চোখ টিপি মাশাল্লা মাছের চেহারা দেইখা তো আমার কাছে তো মনে হয় এইডা পিস পিস কইরা ঝাল দিয়া রান্না করলে খাইতে বাইম মাছের লাহান সুস্বাদু লাগব খাইছে
auto

সৈকতে গিয়ে হাতে কুনিজাল নিয়ে পজিশন নিয়ে খাড়ায়ে থাকে

আরে কুনিজাল লইয়া একডা কি কন? কুনিজাল দিয়া তো আজকাল পুটি মাছও মারে না - এইটা দেখেন, অরিজিনাল কক্স বাজারের ছবি - এইডা লইয়া নামলে যতই ফিতা টাইপের মাছ হোক - পোনা-পুনি সহ ধরা পড়তে বাধ্য:
auto

মামুন হক এর ছবি

দেখ দেখি কারবার...আমার মামা সব জানে!

তিথীডোর এর ছবি

"বাচ্চাদের দিকে তাকিয়ে দেখি ভূমিকম্পের একটানা দুলুনিতে তারা নিজের ছোট্ট বিছানার গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন। আমরা ভয়ে আধমরা আর তারা মুফতে দোলান্তিস খেয়ে ঘুমের দেশে পাড়ি জমিয়েছে। দেখে ফিলিপস বাত্তির বিজ্ঞাপণের মতো করে বলতে ইচ্ছা হলো, অলওয়েজ লুক অ্যাট দ্য ব্রাইট সাইড অভ লাইফ "
চলুক
ডাবল ট্রাবলকে কোয়াড্রুপলিকেট আদর!!!!! হাসি

--------------------------------------------------
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

মামুন হক এর ছবি

ধইন্যাপাতা আর ভালুবাসা আপনাদের জন্যেও হাসি

বোহেমিয়ান এর ছবি

প্রথম অংশটুকু পড়ছিলাম আর ভাবছিলাম , এষা মামণি আর আয়লা মামণির মাঝখানে ভূমিকম্প এল কোথায়?!

অলওয়েজ লুক অ্যাট দ্য ব্রাইট সাইড অভ লাইফ
চলুক

নিরাপদ থাকুন ।
কত তালায় থাকেন আপনারা?
আমাগো ঢাকায় একখান হইলে তো আর সচলে ঢূকবার পারুম না!!! মন খারাপ
__________________________
হৃদয় আমার সুকান্তময়
আচরণে নাজরুলিক !
নাম বলি বোহেমিয়ান
অদ্ভুতুড়ে ভাবগতিক !

_________________________________________
ওরে! কত কথা বলে রে!

মামুন হক এর ছবি

ধন্যবাদ ভাই। আমরা আছি ১১ তলায়, কাঁপুনি টাপুনি ভালোভাবেই টের পাই।
ঢাকায় ভূমিকম্পের কথা ভাবলে আমার শরীরে জ্বর চলে আসে। এই বিষয়ে গোটাকয়েক পিএইচডি করছে আমাদের দ্রোহী ভাই। চলেন তারে ধরি এই নিয়া একটা বিশেষজ্ঞ পোস্ট দিতে।

দ্রোহী এর ছবি

হ.....দ্রোহী ভাই ভূমিকম্প বিষয়ে ব্যাপক জ্ঞান নিয়ে বসে আছে। জ্ঞানের ভারে তার মাথা এক দিকে কাইত হয়ে থাকে সবসময়।

পিএইচডি = পাকিস্তানের হোগায় ডাণ্ডা (আবিষ্কারক: লীলেন্দা)

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- আমি পাকিস্তানের হোগায় ডাণ্ডা (পিএইচডি) না মেরেও জানি ভূমিকম্প হৈলে জমিন কাঁপে। মেম্বরও এইটাও জানে। আমরা হমান হমান। দেঁতো হাসি
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

মামুন হক এর ছবি

দ্রোহীরে ফাউল কথা কইতে মানা কর ...সে যতবার উচ্চ করে শির আমার বলছে যে, জানেন ঢাকায় ভূমিকম্পের সম্ভাবনা এবং সতর্কতামূলক ব্যবস্থার উপরে আমার গোটাকয়েক পি এইচ ডি করা আছে...এর বদলায় প্রতিবার আমারে একটা করে আধুলি দিলেও আমি ধনী হয়ে যাইতাম। কিন্তু কেমনে সে চক্ষু উল্টাইয়া এমন দরকারী একটা বিষয়ে লিখতে আপত্তি জানায়? দ্রোহীরে ধইরা বাইন্ধা পিটানো দরকার , এমন ফাকিবাজ আর দেখি নাই।

দ্রোহী এর ছবি

দ্রোহীর পোঁদে আঙ্গুল দিয়েন না
হাত গান্ধা হয়ে যাবে
দ্রোহী বড় ভালু ছাওয়াল......

মামুন হক এর ছবি

হ, ভাবী তো হুদাহুদিই দ্রোহীরে খাটের পায়ার সাথে বাইন্ধা রাখে দেঁতো হাসি

রাগিব এর ছবি

বাচ্চারা কেমন হয়েছে এতোদিনে, ছবি টবি দিন না একটু, বাবুদুটোকে দেখি।

--

হাইতিতে ভূমিকম্পের পর দৈনিক সংগ্রামের রিপোর্ট এসেছিলো, ওটা নাকি আমেরিকার কাজ, ইরানে ভূমিকম্প অস্ত্র মারতে গিয়ে হাইতিতে লেগে গেছে। আমার পরিচিত এক জামাতপন্থী জনে জনে সেই রিপোর্ট উল্লাসের সাথে ইমেইলে বিলি করছিলো।

এখন চিলিতে হওয়াতে জামাত/সংগ্রামের নতুন থিওরি আর জানতে পারিনি, আর তাইওয়ানের ঘটনার পরেও আর ইমেইল পাইনি। জানতে ইচ্ছে করে, ভূমিকম্প-অস্ত্রের থিওরি দিয়ে এটাও তারা ব্যাখ্যা করছে কি না।

----------------
গণক মিস্তিরি
মায়ানগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | টুইটার

----------------
গণক মিস্তিরি
জাদুনগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | শিক্ষক.কম | যন্ত্রগণক.কম

মামুন হক এর ছবি

রাগিব ভাই,
ছবিটবি সহই একটা লেখার দেবার ইচ্ছা ছিল। ভূমিকম্পে সব প্ল্যান তছনছ। পরের লেখায় অবশ্যই মেয়েদের ছবি থাকবে। এই একমাসে দুজনেই একটু বড় হয়েছে , লম্বায় ২-৩ সেমি আর ওজনে কেজিখানেক। তাতেই বড় বড় লাগে। তবে চেহারাছবি একেকদিন একেকরকম লাগে। আরেকটু বড় হলে বোধহয় বোঝা যাবে দেখতে কার মতো হয়েছে।

সংগ্রামের রিপোর্টের কথা শুনে হাসবো না কাঁদবো এখনো বুঝে উঠতে পারছিনা।

ঘাসফুল [অতিথি] এর ছবি

মামুন ভাই......এই ডাবল ট্রাবল দুনিয়ায় আসার আগে থেকে গল্প শুনতেছি।মনে মনে আশা ছিলো গর্বিত পিতা মনের আনন্দে সচলেও ছবি দিয়ে দিবে।চান্সে আমিও দেখব।আপনি নিশ্চয় খোমাখাতায় এদের ছবি দিছেন।আর আমরা অচেনা অতিথি বলে এমন অবিচার। অচিরেই দুই পোনার ছবি সহ পোস্ট দেখতে চাই চাই চাই।

মামুন হক এর ছবি

ভাই ঘাসফুল, অত্যন্ত দুঃখিত, নানা ঝামেলায় সবাইরে ছবি দেখাতে পারি নাই। আপনার সম্মানে এখানে একেবারে তাজা দুইটা ছবি দিলাম। সামনে আলাদা একটা ফটোব্লগ দিব। প্রমিজ হাসি
DSC06237

DSC06213

রাগিব এর ছবি

সর্বনাশ!! এ যে দেখছি ডাবল রোল!! কোনটা কে তা তো বোঝার উপায় নেই, হুবুহু এক হয়েছে হাসি

অনেক আদর রইলো।

----------------
গণক মিস্তিরি
মায়ানগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | টুইটার

----------------
গণক মিস্তিরি
জাদুনগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | শিক্ষক.কম | যন্ত্রগণক.কম

মামুন হক এর ছবি

ঠিক বলছেন রাগিব ভাই, দুইজনরে আলাদা করা আমাদের জন্যও মুশকিল হয়ে যায় অনেক সময়। একজনের কপালে ছোট একটা জন্মদাগ ছিল, সেটা আবার হালকা হয়ে আসছে দিন দিন। সামনে বোধহয় অমোচনীয় কালি দিয়ে কপালে নাম লিখে রাখতে হবে হাসি

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

একই রকম রে, কোনটা কে? ছবির উপর নাম বসায়ে দে।

মামুন হক এর ছবি

সরি দোস্ত তাড়াহুড়ায় নাম বসানো হয় নাই, বাম পাশে এষা আর ডানে আয়লা।

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

ছবি দুটা কিন্তু মজার। উপরের বামে আর নিচের ডানেরটা ঘুমায়।
উপরের ডানেরটা কান্দে আর নিচের বামেরটা ঘাড় ঘুরে সেটা দেখে চোখ টিপি

অতিথি লেখক এর ছবি

ওরে সব্বোনাশ!! এরা তো দেখি মডেল মডেল টাইপস!! ঐ যে বাচ্চাদের ছবি দেওয়ালে টানায়ে রাখা হয় যে, ঐ রকম।
অসাধারণ সুন্দর।
ভালো থাকুন, মামণিদের ভালো রাখুন, তাদের নিয়ে আনন্দে থাকুন।

- মুক্ত বয়ান

ঘাসফুল [অতিথি] এর ছবি

দুইটাকে অনেক অনেক আদর,ভালোবাসা আর শুভকামনা।এরকম একটা পরী পেলেই কত পাওয়া হয়ে যায়।আপনি ভাগ্যবান।ছবির জন্য ধন্যবাদ।

বর্ষা এর ছবি

লেখা পড়ে বেশ ভালো লাগলো- খুব বেশী ভালো লাগলো। এরা হামাগুড়ি দেয়া শুরু করলে আরো ঠ্যালা বাড়বে।
@ রাগিব ভাইয়ের মন্তব্য, 'ভূমিকম্প-অস্ত্র' টেকনোলজি জানতে মন চায় ( ফাজলামো না ) । এখুনি একটু সার্চ মেরে দেখি জিনিসটা পসিবল না কি---- বেশ ইনোভেটিভ লাগলো।

********************************************************
আমার লেখায় বানান এবং বিরাম চিহ্নের সন্নিবেশনের ভুল থাকলে দয়া করে ধরিয়ে দিন।

********************************************************
আমার লেখায় বানান এবং বিরাম চিহ্নের সন্নিবেশনের ভুল থাকলে দয়া করে ধরিয়ে দিন।

মামুন হক এর ছবি

ধন্যবাদ বর্ষা। হামাগুড়ি যে কবে দিবে সেই অপেক্ষায় আছি, ভেজাল বাড়ুক সমস্যা নাই।

গৌতম এর ছবি

প্রথম প্রশ্ন হলো, আমার মেয়েরা কেমন আছে? চোখ টিপি

আর দ্বিতীয় কোনো প্রশ্ন নেই। তবে উপদেশ আছে। সেটা হলো- পুরো ঘর তন্নতন্ন করে খুঁজে দেখুন এরকম কী কী জিনিস আছে যা এরকম ভূমিকম্প বা অন্য কোনো কারণে উপর থেকে পড়তে পারে। সেগুলো সব এখন থেকেই সরাতে শুরু করেন। পাশাপাশি যেসব জিনিসপত্র শিশুদের জন্য বিপদজনক সেগুলোও সরাতে শুরু করেন। শিশুরা কিন্তু খুব দ্রুত বড় হয়। এখন থেকেই কিন্তু সেগুলোর ব্যাপারে সতর্ক হওয়া দরকার।

তৃতীয় কথা হলো, আমার মেয়েদেরকে আদর দিয়েন। হাসি

.............................................
আজকে ভোরের আলোয় উজ্জ্বল
এই জীবনের পদ্মপাতার জল - জীবনানন্দ দাশ

শিক্ষাবিষয়ক সাইট ::: ফেসবুক

.............................................
আজকে ভোরের আলোয় উজ্জ্বল
এই জীবনের পদ্মপাতার জল - জীবনানন্দ দাশ

মামুন হক এর ছবি

আপনার মেয়েরা ভালোই আছে গৌতম সাহেব হাসি
সারা ঘর তন্ন তন্ন করে খুঁজে অনেক আগে আফ্রিকা থেকে কেনা কিছু ছোট ছোট মূর্তির ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে। থ্যাঙ্কস ফর দ্য হেডস আপ ।

অনার্য সঙ্গীত এর ছবি

দেশ থাইকা তো ভাগছেন। আমরা আপনেগোরে প্যাটভইরা জ্বালাইতে পারিনা। তাই আমাগো দোয়ায় এষা-আয়লা নাজিল হইছে। চাচাগো পক্ষদিয়া আপনাগোরে পর্যাপ্ত নাজেহাল করার পর তারা চাচাদের কাছে চলে আসবে হাসি
____________________________
নিজের ভেতর কোথায় সে তীব্র মানুষ !

______________________
নিজের ভেতর কোথায় সে তীব্র মানুষ!
অক্ষর যাপন

মামুন হক এর ছবি

হা হা। ভাবেগতিকে তাই মনে হচ্ছে। চাচারা আবার এদের জ্বালায় অতীষ্ঠ হয়ে বাপ-মায়ের কাছে ফেরৎ না পাঠালেই হয় হাসি

উদ্ভ্রান্ত পথিক এর ছবি

মামুন ভাই, ভাবী আর পিচ্চি ২টারে নিয়ে দেশে আসেন দেঁতো হাসি
পিচ্চিদের ছবি দেখতে মঞ্চায় হাসি
---------------------
আমার ফ্লিকার

---------------------
আমার ফ্লিকার

মামুন হক এর ছবি

অবশ্যই আসবো। তোমারে দিয়া ছবি তোলাতে হবে না? হাসি
উপ্রে ছবি দিসি দুইটা ,দেখ ভাল্লাগে কিনা।

দ্রোহী এর ছবি

আপনের সুখ দেখলে হিংসা লাগে। এক বলে ছক্কা মাইরা "কিং অভ দ্য ওয়ার্ল্ড" হয়ে বসে আছেন। পাড়ার পোলাপাইনের (আপনার মেয়েদের পাণিপ্রার্থী) গালাগালি খাওয়ার জন্য আগেভাগেই রেডি থাকেন।

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- হ, খুব সম্ভবত মামুন ভাই আমার পুলার কাছেও গাইল খাইবো। একে তো আমার পুলা, তায় আবার চোখের সামনে দুই দুই খান রাজকন্যা! পুলার আর কী দোষ! মন খারাপ
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

মামুন হক এর ছবি

হ, রেমিংটন শটগানের অর্ডার দিসি। আর ধুগোর পোলা জ্বালাইতে আসলে তারে ধুগোর লেখা উত্তরাধুনিক কবিতা শোনানো হবে । হাজার হইলেও ভাইস্তারে তো আর গুল্লি করতে পারুম না হাসি

অতিথি লেখক এর ছবি

ডাবল বাবু'র একটা বড় সমস্যা আপনে বলতে ভুলে গেছেন!!
দু'জনে একসাথে ঘুমাইলে, কোন কারণে যদি একজন উঠে কান্না শুরু করে, আরেকজন প্রথমে চোখ খুলে জুলজুল চোখ করে তাকাবে, একটুক্ষণ সিদ্ধান্ত নিয়ে তারপরে তিনিও হাই ভলিউমে গান শুনানো শুরু করবে!!
প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতা!!
পিচ্চিদের অনেক অনেক আদর।

- মুক্ত বয়ান

মামুন হক এর ছবি

আপনার বাস্তব অভিজ্ঞতা একেবারে খাপে খাপ মিলে গেছে। আসলেই এরা তাই করে। মজাও লাগে দেখতে , এট্টু বিরক্তও লাগে।

অতিথি লেখক এর ছবি

হা হা... সুন্দর লিখেছেন। এরপর থেকে সহজে ঘুম পাড়ানোর জন্য আম্রিকার কাছ থেকে ভূমিকম্প অস্তর-টা ভাড়া করে আনেন। হাসি
পিচ্চি দুজনারে অনেক আদর দিয়েন। ভাল থাকবেন।

কৌস্তুভ

মামুন হক এর ছবি

অনেক ধন্যবাদ কৌস্তভ। আপনিও ভালো থাকবেন।

দুর্দান্ত এর ছবি

ঢিষ্ক্যাঁও

দুর্দান্ত এর ছবি

বস, গতবার ঢাকায় কাছাকাছি অভিজ্ঞতা হয়েছিল। মধ্যরাত, টোনাটুনি নাটকফাটক দেখে শোবার পায়তারা করছিলাম। মেয়েদুটো আগেই ঘুম। এসময় হঠাত বেশ চাপা গম গম করে শব্দ হয়ে দুনিয়াটা কেঁপে উঠল। ঘরে ঝাড়বাতি ছিলনা, তবে খাটের তলার থাকা একটা বলকে দেখলাম কাঁপতে কাঁপতে বের হয়ে আসছে। জব্বর ডরাইসিলাম।
---
তাতেই এভাবে মাথা ঘুরে উঠবে এই ঘোর জওয়ানীতে?

আপনার এই কথাটাতে ইদানিং শোনা একটা গানের কয়টা লাইন মনে পড়লোঃ
ঊমার কাবকি বারাসকে সফেদ হো গায়ি
কারি বাদরি জওয়ানী কি ছাটতি নাহি
ওয়াল্লাহ য়েহ ধড়কান বাড়নে লাগি হ্যায়
চেহরে কা রাঙ্ঘত উড়নে লাগি হ্যায়
ডার লাগতা হ্যায় তানহা সোনে মে জী
দিল তোহ বাচ্চা হ্যায় জী!

মামুন হক এর ছবি

ডরানোরই কথা বস, আমরাও ঘাবড়াইছিলাম। কপাল ভালো কারও কোন ক্ষতি হয় নাই।
কী গান শুনাইলেন মিয়া , বাংলায় কন হাসি

ওডিন এর ছবি

মাসদুয়েক আগে আমি দুর্ধর্ষ একটা ফার্স্ট পার্সন শুটার খেলতেছিলাম- গভীর রাতে। রাশিয়া আমেরিকা ইনভেড করছে- প্যারাট্রুপার নামতেছে, নেব্রাস্কার প্রান্তরে সিরিয়াস গোলাগুলি হইতেছে, মাত্র একটা গ্যস স্টেশন বিস্ফোরিত হইলো- আমি কই উরেব্বাস! এমুন সাউন্ড এফেক্ট যে আমার মনিটরও দেখি কাঁপে! কিন্তু আওয়াজ ছাড়াই আরো কয়েকবার কাঁপার পরে বুঝলাম সেইটা ভূমিকম্প ছিলো!

এইসব একদম ভাল লাগে না, যেই মাটির ওপরেই খাড়ায় থাকি সেইটাই যদি এইরকম বিট্রে করে তাইলে কেম্নে কি? মন খারাপ

যাই হোক পিচ্চিগুলারে নিয়া একটু সাবধানেই থাইকেন ভাই।
______________________________________
যুদ্ধ শেষ হয়নি, যুদ্ধ শেষ হয় না

মামুন হক এর ছবি

সাবধানে থাকা ছাড়া আর গতি নাই। আমাদের সবারই খেয়াল করে চলা উচিত।

s-s এর ছবি

এষা নামটা ভীষণ সুন্দর।
এখন কেমন আছেন, সবাই?
নতুন বাবা হবার জন্য উষ্ণ অভিনন্দন। নতুন মায়ের জন্যও :)। কথা হবে।

মামুন হক এর ছবি

এখন সবাই ভালো আছি। অনেক ধন্যবাদ সেঁজুতি। কথা হবে, দেখাও হবে অচিরেই হাসি

অনিকেত এর ছবি

বস, এষা আর আয়লার জন্যে অনেক অনেক আদর!
আর তোমার জন্য মাথায় একটা লাঠির বাড়ি, বাঁদর!

ভূমিকম্প হচ্ছে আর তুমি বাসার ভেতর দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে তামশা দেখছ?
এক ছুট্টে বাইরে গেলে না কেন? নাকি ঐ সময় বাইরে যাওয়া নিরাপদ নয়?
আমার তো মনে হয় ঝাড়বাতিওয়ালা ঘরে বসে থাকার চেয়ে বাইরে অনেক নিরাপদ হবার কথা---
যাই হোক, পরের বার এমুন যেন না হয়, নাইলে তাইওয়ান আইসা তাইরে-নাইরে কইরা দিমু কইলাম----!!!!

ভিন্ন প্রসঙ্গঃ লেখাটা জোস---

মামুন হক এর ছবি

বস, বাপের মাথায় বাড়ি দিলে মেয়েগো কী উপায় হইবো? আসলে আমরা থাকি ১১ তলায় বাচ্চালাচ্চা নিয়ে দৌড়ে পালাবার কোন উপায় নাই। থাকলে তো অবশ্যই একটা কোলে একটা কাখে নিয়া বের হয়ে যেতাম।
তাইওয়ান আইসা এমনিতেই একবার তাইরে-নাইরে কইরা দিয়া যাও। দাওয়াত থাকলো হাসি

মামুন হক এর ছবি

আহো মিয়া এইদিকে একবার, পেট ভইরা খাইয়া যাইতে পারবা।

সবজান্তা এর ছবি

নিরাপদ আছেন শুনে ভালো লাগলো।

আত্মজার প্রতি ভালোবাসা দিয়েই পৃথিবীর সব ভূমিকম্পকে ঠেকিয়ে দিতে পারবেন, নিশ্চিত জানি। হাসি


অলমিতি বিস্তারেণ

মামুন হক এর ছবি

আরে সবজান্তা যে! বহুদিন পরে।
অনেক ধন্যবাদ ভাইডি, এই মুহূর্তে আত্মজা ছাড়া আসলেই আর কোন কিছু লিস্টিতে নাই।

নজমুল আলবাব এর ছবি

নিরাপদ থাকুন। নিরাপদে রাখুন বাচ্চাদের।

------------------------
ভুল সময়ের মর্মাহত বাউল

মামুন হক এর ছবি

আপ্নিও বাউল সাহেব। কথা হবে।

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

বিষয়টা হালকা সুরে লেখা হলেও, পড়তে গিয়ে খুবই খারাপ লাগলো। বিশেষ করে ওই মুহূর্তে কী অবস্থাটা যাচ্ছিল, সেটা চিন্তা করে। খারাপ কিছুও তো ঘটে যেতে পারতো। যাই হোক, তা হয়নি জেনে খুবই নিশ্চিন্ত আর ভালো লাগতেসে।

মেয়ে দুইটার জন্য অনেক আদর থাকলো। কোনও বিপদ যেনো ওদের স্পর্শও না করতে পারে। সবার নিরাপদ ও সুস্থ জীবন কামনা করি হাসি

মামুন হক এর ছবি

ভয় পাইসনা। খারাপ কিছু ঘটবেনা আশাকরি। তবুও সাবধানে থাকি যদ্দুর পারি।

অতিথি লেখক এর ছবি

এষা আর আয়লার জন্যে অনেক অনেক আদর।
ঝাড়বাত্তিটা নামায়া রেখে দেন মামুন ভাই। ভুমিকম্পতো আপনাদের ওখানে বাড়িওয়ালার মত প্রায় প্রতিমাসে একবার করে দেখা দেয়। কখনো হালকা ঝাড়ি দেয় আর কখনো ঝেড়ে কাশে।

---- মনজুর এলাহী ----

মামুন হক এর ছবি

হ, আমিও তাই ভাবতেছিলাম। নামাইয়াই রাখি। আসলেই বেশ কড়াভাবে দুলতে ছিল।

জোহরা ফেরদৌসী এর ছবি

কন্যা সন্তান জন্মালে বাবারা মোটামুটি এভারেস্টের চুড়ায় চলাচল করেন । আপনার আবার হয়েছে ঈশ্বরের কৃপায় দু’জন নয়ন পুত্তলি । বুঝতেই পারছি, আপনি “দ্বিগুন এভারেস্টের” চুড়ায় আছেন । সে যাক নয়ন পুত্তলিদেরকে আদর জানাবেন (জগত সংসারে তারা দু’জন দেশের নাম উজ্বল করুক) । আর তাদের মায়ের প্রতি স্যালুট ।
.......................................
তোমারই ইচ্ছা কর হে পূর্ণ ....

__________________________________________
জয় হোক মানবতার ।। জয় হোক জাগ্রত জনতার

মামুন হক এর ছবি

হাসি দারুণ একটা কথা বললেন। অনেক অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। ভালো থাকবেন।

তানভীর এর ছবি

সাবধানে থাকেন।

'ডাবল-ট্রাবল' নিয়ে আপনার জীবনটা তো এখন পুরা সিনেমার মতো চলতেসে মনে হয় হাসি

মামুন হক এর ছবি

হ, বস। কখন কোনদিকে টার্ন নেয়া বুঝা যাচ্ছেনা।

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

যাক, একটা রোলার কোস্টার রাইডে আছেন।
আমাদের শ্রেয়া-শ্রেষ্ঠা-র এই ১২ তারিখে ১৬ মাস হবে।
সচলদের মধ্যে আরো কার কার জানি জমজ কন্যা আছে।
নাহার মনিকার মেয়ে দুটো বেশ বড় হয়ে গেছে। সুতরাং তার কাছ থেকে সবচে ভালো পরামর্শ পেতে পারেন - জমজ কন্যা লালন-পালন সম্পর্কে।
-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

মামুন হক এর ছবি

সাবাশ। আপনিই পারবেন আমাকে গাইড করতে। নাহার মনিকাকে অনেকদিন যাবৎ দেখিনা। ভালো থাকেন শ্রেয়া-শ্রেষ্ঠা আর ভাবীকে নিয়ে হাসি

সুমন চৌধুরী এর ছবি

ভালো থাকেন ...খিয়াল কৈরা ....



অজ্ঞাতবাস

মামুন হক এর ছবি

ধন্যবাদ বদ্দা

তাসনীম এর ছবি

সত্যই যে ভূমিকম্পের গল্প এটা পড়ার পরে বুঝলাম। প্রথমে মনে হয়েছিল শিশুপালন বিষয়ক কম্পন। যাহোক ভালো থাকুন, এষা আর আয়লার জন্য অনেক অনেক আদর রইল।

+++++++++++++++++++++++++++++++++++++
মাঝে মাঝে তব দেখা পাই, চিরদিন কেন পাই না?

________________________________________
অন্ধকার শেষ হ'লে যেই স্তর জেগে ওঠে আলোর আবেগে...

মামুন হক এর ছবি

অনেক ধন্যবাদ তাসনীম ভাই। আপনার শিশুপালনের পরের পর্ব আর দেখি দিলেন না

তাসনীম এর ছবি

এই শিগগিরি শেষ করে ফেলব, প্রমিজ...আপনার শিশুপালন শুভ হোক।

+++++++++++++++++++++++++++++++++++++
মাঝে মাঝে তব দেখা পাই, চিরদিন কেন পাই না?

________________________________________
অন্ধকার শেষ হ'লে যেই স্তর জেগে ওঠে আলোর আবেগে...

সাইফ তাহসিন এর ছবি

দেরীতে আসার কারনে দারুন একখানা লেখার পাশাপাশি ২ দেবশিশুর ফটুক ও দেখতে পাইলাম, আর মামুন ভাইয়ের ঘুমহীন রাত দীর্ঘ হউক চোখ টিপি

এইভাবে ছবি দিলে কইষা মাইনাস দিমু মিয়া, ফটুক ব্লগ দেন, যেখানে অনেক ছবি থাকবে, ২টা ছবি দেইখা তো মন ভরে না।

=================================
বাংলাদেশই আমার ভূ-স্বর্গ, জননী জন্মভূমিশ্চ স্বর্গাদপি গরিয়সী

=================================
বাংলাদেশই আমার ভূ-স্বর্গ, জননী জন্মভূমিশ্চ স্বর্গাদপি গরিয়সী

মামুন হক এর ছবি

আচ্ছা দিমুনে ফটোব্লগ। আরেট্টু ধৈজ্জ ধর হাসি

দময়ন্তী এর ছবি

আপনার রাজকন্যাদ্বয়কে অনেক অনেক ভালবাসা৷ আমার শুভকামনা সবসময় যেন ওদের ঘিরে রাখে, কোন বিপদে পড়তে না দেয৷

হুগো শাভেজ বলে ফেলার পর, এটা বেশ চালু এখন যে আমেরিকা একটা ভূমিকম্প ইনডিউস করবার যন্তর বানিয়েছে৷ হাসি তবে এটাও সত্যি যে এই ধরণের বড় কোন বিপর্যয় ঘটাতে পারলে ধার দেওয়া সহজ৷ আর অতিরিক্ত বেশী ধার দিলেই, কোনও দেশকে সহজে বশে রাখাও সম্ভব, উইদাইট মাচ কোল্যাটারাল ড্যামেজ৷
-----------------------------------------------------
"চিলেকোঠার দরজা ভাঙা, পাল্লা উধাও
রোদ ঢুকেছে চোরের মত, গঞ্জনা দাও'

-----------------------------------------------------
"চিলেকোঠার দরজা ভাঙা, পাল্লা উধাও
রোদ ঢুকেছে চোরের মত, গঞ্জনা দাও'

মামুন হক এর ছবি

অনেক অনেক ধন্যবাদ দমু আপা হাসি

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

লেখা ছবি মন্তব্য সবকিছু অনেক ভাল লাগল।

ভূমিকম্পে ভয় খাইলে দ্রোহী মেম্বররে স্মরণ কইরেন। দেঁতো হাসি

মামুন হক এর ছবি

আর লোক পাইলেন না, তার মতোন ফাঁকিবাজ আর একটাও নাই ব্লগভুবনে।

সচল জাহিদ এর ছবি

সবাই নিরাপদে আছে জেনে ভাল লাগল মামুন ভাই। মামনি দুইডারে আদর দিয়েন।

----------------------------------------------------------------------------
এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি
নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

মামুন হক এর ছবি

অনেক ধন্যবাদ জাহিদ। তোমার ছেলেটাকেও আমাদের আদর দিও।

জুয়েইরিযাহ মউ এর ছবি

সবাই ভালো আছো জেনে ভাল্লাগলো ভাইয়া.....
পুতুল দুটার জন্য অনেক অনেক আদর রইলো।
ভালো থেকো সব্বাই হাসি

-------------------------------------------------------
জানতে হলে পথেই এসো, গৃহী হয়ে কে কবে কি পেয়েছে বলো....


-----------------------------------------------------------------------------------------------------

" ছেলেবেলা থেকেই আমি নিজেকে শুধু নষ্ট হতে দিয়েছি, ভেসে যেতে দিয়েছি, উড়িয়ে-পুড়িয়ে দিতে চেয়েছি নিজেকে। দ্বিধা আর শঙ্কা, এই নিয়েই আমি এক বিতিকিচ্ছিরি

মামুন হক এর ছবি

অনেক ধন্যবাদ। তোমরাও ভালো থেকো হাসি

অছ্যুৎ বলাই এর ছবি

ডাবল শুভেচ্ছা মামুন ভাই ও ভাবীকে। পিচ্চিরা আমাদের নাম উজ্জ্বল করুক এই আশীর্বাদ রইলো।

---------
চাবি থাকনই শেষ কথা নয়; তালার হদিস রাখতে হইবো

মামুন হক এর ছবি

ধন্যবাদ বলাইদা

সুহান রিজওয়ান এর ছবি

যাক একজন হইলেই হয়, আমরা আমরাইতো।

হাহাহা...

আশা রাখি ভূমিকম্পে আপনার এলাকায় বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয় নাই। এষা -আয়লারে কাতুকুতু দিয়েন আর নিয়মিত ছবির মাধ্যমে আপডেট দিয়েন...

_________________________________________

সেরিওজা

মামুন হক এর ছবি

আপডেট পাইবা ভাইয়া। ধইন্যাপাতা

স্পর্শ এর ছবি

আহারে! বাবু দুইটারে ভালোবাসা।


ইচ্ছার আগুনে জ্বলছি...


ইচ্ছার আগুনে জ্বলছি...

মামুন হক এর ছবি

সস্থানে পৌছাইয়া দিলাম হাসি

অতিথি লেখক এর ছবি

অবশেষে আমিও অনেকদিন পর অভিনন্দন জানানোর সুযোগ পেলাম। অভিনন্দন রইলো।

এম এস আর শাহিদ

মামুন হক এর ছবি

ধন্যবাদ শাহিদ। ভালো থাকবেন

যুধিষ্ঠির এর ছবি

মেয়েরা সহ সবাই ভালো আছেন জেনে ভালো লাগলো।

মামুন হকের লেখায় মন্তব্য করতে দেরী হলে এই এক সমস্যা। মোটামুটি আধবেলা দেরী হলেই মন্তব্যের সিরিয়াল সাতশো'তে গিয়ে ঠেকে। যাকগে, শুভকামনা যত বেশি হয় ততই ভালো হাসি

মামুন হক এর ছবি

হা হা...সাতশোর মধ্যে আমার নিজের মন্তব্যই সাড়ে পাঁচশো। সবার আন্তরিক শুভকামনা আর ভালোবাসার প্রতি কৃতজ্ঞতা না জানানোর মতো পাষণ্ড এখনও হয়ে উঠতে পারি নাই হাসি

ওয়াইল্ড-স্কোপ এর ছবি

সাতশোর মধ্যে আমার নিজের মন্তব্যই সাড়ে পাঁচশো।

মামু দেখি নিজের পোস্টের হিট নিজের মারতাসেন গড়াগড়ি দিয়া হাসি এতটা সবিনয় বিনীত না হলেও চলে খাইছে

শাহেনশাহ সিমন এর ছবি

কখন যে কি করে পিচ্চিগুলা... আমরা সবাই মিলে বাসার একটারে নিয়ে আনন্দের সাথে পেরেশান, আপনের তো জোড়া! ঈশ্বর আপনার সহায় হোক চোখ টিপি
_________________
ঝাউবনে লুকোনো যায় না

_________________
ঝাউবনে লুকোনো যায় না

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।