ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ব্লগ

নয়া চীনের গল্প সংকলন

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি
লিখেছেন ষষ্ঠ পাণ্ডব (তারিখ: সোম, ২৪/০৮/২০১৫ - ৩:২৯অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

এই লেখাটি প্রচলিত অর্থে বুক রিভিউ নয়। গল্প পড়ে যে যে বিষয় নিয়ে আলোচনা করা আমার কাছে প্রয়োজন মনে হয়েছে আমি তাই বলার চেষ্টা করেছি। সুতরাং লোকমান্য পদ্ধতির বুক রিভিউ যেখানে ‘বাকী অংশ রূপালী পর্দায় দেখুন’ ফরম্যাট অনুসরণ করা হয় আমি তার ধার ধারিনি। কারণ, বইয়ের বাণিজ্য যেন ক্ষতিগ্রস্থ না হয় সেই বিবেচনায় আলোচনার গলাকে খাটো করার ব্যাপারে আমার আপত্তি আছে। আমার এই আপত্তির ব্যাপারটি যারা মানতে রাজী নন্‌ তারা এই লেখাটি পড়া এখানেই ছেড়ে দিন।


স্বর্গের নিচে

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি
লিখেছেন ষষ্ঠ পাণ্ডব (তারিখ: সোম, ২৯/০৬/২০১৫ - ৪:২৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

[সচলায়তনে লেখালেখির শুরুর দিকে ‘পাণ্ডবের চীন দর্শন’ নামে কয়েক পর্বের একটা সিরিজ লিখেছিলাম। সেই সিরিজটা গণচীন ভ্রমণ বিষয়ক হলেও সেখানে কোন ছবি ছিল না। ভ্রমণের গল্পও বিশেষ কিছু ছিল না। কিছু পাঠক কয়েক বার ‘ছবি দেন’ বা ‘ছবি নাই ক্যান’ জাতীয় কথা বলে বিরক্ত হয়ে চুপ করে গিয়েছিলেন। সিরিজটা ছবি আর গল্পবিহীন কেন সেই কথা বলতে বলতে এক সময় আমিও চুপ করে যাওয়াটা শ্রেয় মনে করলাম। এরপর থেকে পারতপক্ষে আর কোন ভ্রমণ বিষয়ক লেখা দেবার অপচেষ্টা করিনি। এই লেখাটা ঐ চীন দর্শন সিরিজটার মতো ছবি আর গল্পবিহীন। আসলে বেশ কিছু দিন ধরে গুইলিনের কথা খুব মনে পড়ে মনটা ভার হয়ে আছে। এখানে মনের বোঝা নামালাম মাত্র। ব্যক্তিস্বার্থে করা এই অপকর্মের জন্য পাঠকের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী।]


কাহিনীসপ্তক

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি
লিখেছেন ষষ্ঠ পাণ্ডব (তারিখ: রবি, ০৩/০৫/২০১৫ - ৯:২০অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:


বাংলা ক্যালেন্ডার নিয়ে অল্প কথা

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি
লিখেছেন ষষ্ঠ পাণ্ডব (তারিখ: সোম, ১৩/০৪/২০১৫ - ১:২৮অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:


ম্যয় হুঁ খতরনাক!

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি
লিখেছেন ষষ্ঠ পাণ্ডব (তারিখ: বুধ, ২৪/১২/২০১৪ - ৫:০০অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

১.


বিলাতী বলদ

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি
লিখেছেন ষষ্ঠ পাণ্ডব (তারিখ: বুধ, ১৭/১২/২০১৪ - ৫:২৩অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

[justify]পেশাজীবিদের নেটওয়ার্ক লিঙ্কডইনে যখন অ্যাকাউন্ট খুলেছিলাম তখন কানেক্ট করার জন্য যাদের নাম সাজেশনে আসতো তাদের প্রায় প্রত্যেককে অ্যাড রিকোয়েস্ট পাঠাতাম বা কেউ অ্যাড রিকোয়েস্ট পাঠালে সেটা সাথে সাথে অ্যাকসেপ্ট করতাম। এভাবে কিছু দিনের মধ্যে দেখা গেলো আমি বহু লোকের সাথে কানেক্টেড। একদিন কারা কারা আমার সাথে কানেক্টেড আছেন এটা দেখতে গিয়ে দেখি বেশিরভাগ জনকে আমি চিনিনা। তাদের সাথে আমার কানেক্‌শন দুই


পায়রা মাছের খোঁজে

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি
লিখেছেন ষষ্ঠ পাণ্ডব (তারিখ: শনি, ১৩/১২/২০১৪ - ১২:৪৮অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

একথা সবাই জানেন যে, কবুতর নামের পাখিটির আরেক নাম ‘পায়রা’। পটুয়াখালীতে পায়রা নামের একটা নদীও আছে। সেখানে ১৫ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে দেশের তৃতীয় সমুদ্রবন্দর স্থাপনের কাজ শুরু হয়েছে যার নামও দেয়া হয়েছে ‘পায়রা বন্দর’। এই খবরও সবার জানা আছে। কিন্তু আপনি কি জানেন যে পায়রা নামের মাছও আছে? দেশের অন্য এলাকার মানুষ জানুক আর না জানুক বৃহত্তর খুলনা’র লোকজন ‘পায়রা’ নামের মাছটিকে বিলক্ষণ চেনেন।


এই মহানগরে

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি
লিখেছেন ষষ্ঠ পাণ্ডব (তারিখ: বিষ্যুদ, ০৬/১১/২০১৪ - ৫:৪৬অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

০.
ছুটির দিনে আমার একমাত্র বিলাস হচ্ছে সকালবেলাটা ঘুমানো। সপ্তাহের ঠিক মাঝামাঝি একদিন ছুটি পাওয়ায় ভেবেছিলাম আরাম করে সকালটা ঘুমিয়ে কাটাবো। কিন্তু আগের দুই দিন হরতাল থাকায় ছেলেটা কোচিং-এ যেতে পারেনি। তাই ছুটির দিন সকাল-বিকেল দুইবেলা ছেলেকে কোচিং-এ আনা-নেয়া করতে হবে। অতএব, ছুটির দিনের বিলাসিতাকে ত্যাগ করে ছেলেকে নিয়ে কোচিং-এ ছুটি। কাজটা করতে আমার আপত্তি নেই, আলস্যও নেই। কিন্তু একটু খটকা আছে। দুটো কোচিং সেন্টারের দূরত্বই আমাদের বাসা থেকে এতোটা দূরে যে, একবার ছেলেকে সেখানে নামিয়ে বাসায় ফিরে আবার দুই ঘন্টা পরে সেখানে আবার যাওয়া না সময়ে পোষায়, না রিক্‌শা ভাড়ায় পোষায়। তাহলে এই দুই দুই চার ঘন্টা আমি কী করি? কোথায় যাই?


সপরিবারে জাতির জনক হত্যার ষড়যন্ত্রের বিচার চাই

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি
লিখেছেন ষষ্ঠ পাণ্ডব (তারিখ: শুক্র, ১৫/০৮/২০১৪ - ৪:২৭পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

প্রায় চার বছর আগে ২০১০ সালের অক্টোবরে সচলায়তনে সপরিবারে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পেছনের ষড়যন্ত্রের বিচার নিয়ে একটি লেখা দিয়েছিলাম। লেখাটা অগাস্টে না দিয়ে অক্টোবরে দেয়ায় বোধকরি তখন বিষয়টি নিয়ে বিশেষ কোন আলোচনা হয়নি। প্রায় চার বছর পার হলেও বিষয়টিতে এখনো কোন অগ্রগতি না হওয়ায় এটি নিয়ে আবার লেখার প্রয়োজন বোধ করছি। এই প্রসঙ্গে আমার ব্যাখ্যা ও অবস্থানের যেহেতু কোন পরিবর্তন হয়নি তাই বর্তমান লেখাটি আগের লেখার সাথে বহুলাংশে মিলে যাবে। এর জন্য পাঠকের কাছে আগাম ক্ষমা প্রার্থনা করছি।


তোমার মায়ায় অসার সংসার চক্র ঘোরে নিরবধি

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি
লিখেছেন ষষ্ঠ পাণ্ডব (তারিখ: বুধ, ১৩/০৮/২০১৪ - ১১:৩২পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

রমজান মাস আসার আগেই বাংলাদেশে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বাড়তে থাকে। এই দাম বাড়তে থাকাটা মোটামুটি ঈদের সময়ে একটা পর্যায়ে গিয়ে স্থির হয়। ঈদের সময়ে বৃদ্ধিপ্রাপ্ত মূল্য ঈদের পরে আর নিচে নামে না। ওটা ওখানেই স্থির হয়ে যায়। ঈদ ছাড়া বছরের বাকি সময়টাতেও নানা কারণে জিনিসের দাম আরো বাড়তে থাকে। মাঝেমধ্যে কিছু মৌসুমী সবজী ছাড়া জীবনধারণের জন্য প্রয়োজনীয় সব জিনিসের দাম সারাজীবন ধরে আমরা কেবল বাড়তেই দেখি। পরিহাসের বিষয় হচ্ছে এই, যে জীবনকে টিকিয়ে রাখার জন্য এসব জিনিস দরকারী সেই জীবনের দামই ক্রমাগত কমছে। বিশ্বাস না হয় বাংলায় ‘এক টাকার জন্য’ লিখে গুগলে সার্চ করে দেখতে পারেন।