Warning: Creating default object from empty value in i18ntaxonomy_term_page() (line 34 of /var/www/sachalayatan/s6/sites/all/modules/i18n/i18ntaxonomy/i18ntaxonomy.pages.inc).

প্রৌঢ় (৩০ বছর বা তদুর্দ্ধ)

একটি তীর আর একটি গান

সুমাদ্রী এর ছবি
লিখেছেন সুমাদ্রী (তারিখ: বিষ্যুদ, ১২/০৭/২০১২ - ৪:৫৮পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

কোন ক্লাসে পড়েছিলাম এই কবিতা এখন তা আর মনে নেই। সিক্সে কি সেভেনে কি এইটে। তবে মনে আছে ইংরেজী বইটার পৃষ্ঠাগুলো হালকা লালরঙা ছিল। পাতাগুলো ওলটালেই নিউজপ্রিন্টের মিষ্টি গন্ধটা এসে নাকে টোকা দিত। মা খুব যত্ন করে সবগুলো বইয়ের মলাট করে দিত। তার উপর আমি সুন্দর করে লিখে রাখতাম বইটার নাম।


ইতিহাসপাতাল

ওডিন এর ছবি
লিখেছেন ওডিন (তারিখ: রবি, ০১/০৭/২০১২ - ২:৫৫পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

গত দুই বছরের বেশিরভাগ সময়ই কাটিয়েছি হাসপাতালে।

না, প্রিয় পাঠক। এই কথাটা শুনে আপনাদের ভয় পাওয়ার কোন কারণ নাই, আমি পেশেন্ট হিসেবে কখনো হাসপাতালে থাকি নাই, ফরচুনেটলি। বেশ কয়েকবার হাত পা ভাঙ্গলেও হাসপাতালে রোগি হিসেবে থাকার দুর্ভাগ্য বা সৌভাগ্য যাই বলেন, এখনো হয়ে ওঠে নাই। আপনাদের উল্টোদিক থেকে ব্যপারটা একটু চিন্তা করতে হবে আরকি।


এ্যরোমেটিক

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: বিষ্যুদ, ১০/০৫/২০১২ - ২:২০পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

.. কোন কোন দুপুড় বেলা যেরকম লাগে। সেরকম অপদার্থ হয়তো। খুব কষ্টে সৃষ্টে একটা ঘড়ি কিনেছি। ঘড়ি আর ঘর অদ্ভুত একটা সম্পর্ক। তবু যেসব পাপের মধ্যে বেড়ে উঠলে কিছুটা আলাদা হতে হয়। কোন কোন দুপুড়ে নীল এসে ডাক দিয়ে নিয়ে যায় আমাকে। বৃষ্টিতে দাড়িয়ে থাকা... এক পায়ে স্যান্ডেল নেই। মর্মর ছেড়া গাছ সে জানে.. না থাকার মানে।”


যদি আজ ডাকে তার চিঠি পাই/ দেরি হোক যায়নি সময়...

তিথীডোর এর ছবি
লিখেছেন তিথীডোর (তারিখ: মঙ্গল, ০১/০৫/২০১২ - ৭:৫৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ম্যালাদিন পর আস্ত একটা দিন ছুটি পেয়ে গার্ডেন গার্ডেন মনে লাফঝাঁপ দিচ্ছিলাম-- হ্যান করেঙ্গা, ত্যান করেঙ্গা। আর দিন দশেক পর ফৈক্ষা, পুলাপান নাকি ইশটাডি করে করে ফাটিয়ে ফেলছে। আমিই শুধু দলছুটখাইছে
সাতসকালে ঘুম ভাঙল ঠিকই, হুদাই মেজাজটা গেল খিঁচড়ে। মুড সারাতে এখন প্যান্ডোরার বাক্স ঘাঁটি।


অপেক্ষা

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: শনি, ৩১/০৩/২০১২ - ১১:০১অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

[justify] মঙ্গলবার টিফিন বিরতির পর বাংলা ক্লাস। আমি ক্লাস পালালাম।


মিক্সড টেপ

ওডিন এর ছবি
লিখেছেন ওডিন (তারিখ: বুধ, ১৪/০৩/২০১২ - ১০:৩২অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

সাইড 'এ'


আমার মাকড়শা জীবন এবং স্বপ্নরা

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: মঙ্গল, ১৩/০৩/২০১২ - ৭:২৯অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

[justify]একজন মানুষের গড় আয়ুর অর্ধেক এর বেশি পার হয়ে এসে আজ যদি হিসেব মিলাতে বসি, তাহলে দেখি পুরোটা সময় জুড়েই কে এক শুভঙ্কর শুধু ফাঁকিই দিয়ে গেছে। অনেকগুলো এলোমেলো পৃষ্ঠার তৈরী জীবন খাতাটাতে খুঁজে পাইনা গোছানো একটা বাক্যও যা আমাকে একটুকু সান্ত্বনা দিতে পারে এই বলে যে – ‘না, তুমিও পেরেছিলে’।


নোনাধরা সব দিন

ওডিন এর ছবি
লিখেছেন ওডিন (তারিখ: বিষ্যুদ, ০৮/১২/২০১১ - ১২:৩১পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ওইরকম খুব একটা টিভি দেখা হয়না। দেখা হলেও শুধু ক্রিকেট আর ট্রাভেল শো গুলো। আমার এখনকার ফেভারিট চ্যানেল হচ্ছে ফক্স ট্রাভেলার। সুযোগ পেলেই রিমোট গুঁতিয়ে গুঁতিয়ে ওইখানেই আটকানো হয়। বিকেলবেলা দেখলাম আফগানিস্তান। পোলো, ঘুড়ি ওড়ানো আর আফগান বাজার। আর একটু আগেই দেখি আরেকটা ভালো প্রোগ্রাম- 'দ্য রোড লেস ট্রাভেলড' দেখাচ্ছে। এক ব্যাটা মরক্কোতে ইতস্তত নষ্টভ্রষ্ট হয়ে ঘুরোঘুরি করছে। অ্যাটলাস পর্বত থেকে সাহারা।


| ঘড়ায়-ভরা উৎবচন…|১৯১-২০০|

রণদীপম বসু এর ছবি
লিখেছেন রণদীপম বসু (তারিখ: সোম, ২৮/১১/২০১১ - ১০:২৩অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

এই সিরিজে কোন সতর্কতা নেই। কারণ এইখানে কোন সংবেদনশীল বিষয় নেই। সেগুলো নাহয় অন্য পর্বের জন্যেই তোলা থাক।
তবে একটা বিষয় আজ আবার নতুন করে উপলব্ধি হলো কোন এক কার্য-কারণ সম্পর্ক খুঁজতে গিয়ে, যা আজই ফেসবুক স্ট্যাটাসে গেঁথে রেখেছি নব্য উৎবচন হিসেবে : ছাগল হওয়ার বিশাল সুবিধা হলো, ছাগলামি করতে আগে থেকে কোন প্রমাণপত্র পেশ করতে হয় না।

তবে এই সিরিজের সাথে ছাগলের কোন সম্পর্ক নেই !


সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশীদের চরম দুর্দিনঃ কিছু জাতীয় ভ্রান্তির অনিবার্য্য পরিণাম

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: রবি, ১৬/১০/২০১১ - ১১:৫৬অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ভদ্রলোকের বাসাটা নীচ তলায়। মহল্লার রাস্তার সাথে লাগোয়া এ বাসাতে তিনি থাকেন সপরিবারে দীর্ঘ প্রায় পাঁচ বছর ধরে। চার তলা বিল্ডিংটার বাইরের গেইটটা খোলাই থাকে সাধারনত। সকাল তখন সাড়ে আটটা। অফিসের উদ্দেশে বের হচ্ছেন। বাসার মেইন দরজা খুলে বাইরে পা দিতেই ৩ জন লোক তাকে ঘিরে ধরল। ছোরা হাতে ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক তাকে বাসার ভেতরে নিয়ে গিয়ে দরজাটা লক করে দিল। তাদের সাথে ধস্তাধস্তির কারনে ভদ্রলোক কিছুটা আহ