‘and the end cannot be far,’- স্কটের মৃত্যু দিনে

তারেক অণু এর ছবি
লিখেছেন তারেক অণু (তারিখ: মঙ্গল, ২৯/০৩/২০১৬ - ৩:১৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

চারিদিকে মৃত্যুর চেয়েও হিম এক নীরবতা। বিশাল বিস্তীর্ণ ধবধবে সাদা করাল এক জগতে ডানা মেলে আছে যে শূন্যতা তাকে ভেদ করার সাহস কারো নেই, এমনকি সূর্যের আলোও তা পারে না বছরের অর্ধেক সময় জুড়ে, সেখানে টিমটিমে জীবন এবং প্রদীপ্ত আশার প্রদীপ জ্বালিয়ে রোজনামচা লিখে চলেছেন এক সিংহপুরুষ। এক যুগ ধরে চালিয়ে আসা অভিযানের পর অভিযানের লক্ষ্য অবশেষে পূরণ হয়েছে তাই, কিছুদিন আগেই সঙ্গীদের নিয়ে এক ভয়ংকর বরফ মহাদেশের বিশে


বিপন্ন স্বদেশের বিবর্ণ প্রচ্ছদ

সাক্ষী সত্যানন্দ এর ছবি
লিখেছেন সাক্ষী সত্যানন্দ [অতিথি] (তারিখ: শনি, ২৬/০৩/২০১৬ - ৩:১৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

[ সাড়ে চার দশক আগে, এই বাংলাদশটা ধুম করে আকাশ থেকে পড়েনি। ওসব পৌরাণিক কাহিনীতেই হয়। বাস্তবে মুক্তির মন্দির সোপানতলে কত প্রান যে বলিদান দিতে হয়, তার কোনও হিসাব নেই। স্বাধীনতা কেবলই মুক্তির সূচনা মাত্র। মুক্তি যেহেতু আসেনি বলিদান আজো অব্যাহত আছে। সেই বলিদান যেন আমরা বৃথা না করে দেই। অনেক দাম দিয়ে কেনা এই দুঃখিনী বাংলা। ]


"দ্য গেরিলা"- এ পার্সোনাল মেমোরেন্ডাম অব নাইনটিন সেভেনটি ওয়ান

আব্দুল্লাহ এ.এম. এর ছবি
লিখেছেন আব্দুল্লাহ এ.এম. [অতিথি] (তারিখ: শনি, ২৬/০৩/২০১৬ - ১২:০৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

"যুদ্ধদিনের সাথীরা আমার, তোমরা যাঁরা বেঁচে আছ, কিংবা যাঁরা পাড়ি জমিয়েছ অনন্ত পরলোকে, তোমাদেরই একজন হতে পেরে নিজেকে আমি অত্যন্ত গৌরবান্বিত মনে করি।"- যাঁদের উদ্দেশ্যে তিনি তাঁর লেখা বইয়ে এই কথাগুলো বলেছেন.....................


২৫ মার্চ

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: শুক্র, ২৫/০৩/২০১৬ - ৩:২৮অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

যতদূর মনে পড়ে ১৯৭১ এর মার্চে রোদের তীব্রতা যেন একটু বেশিই ছিলো। এই উত্তাপ প্রকৃতির খেয়াল না বাঙ্গালীর মনের ক্ষোভের প্রতিফলন – তা ৪৫ বছর পর আজ আর স্মৃতি আলাদা করতে পারেনা।


নিজের কথা

আব্দুর রহমান এর ছবি
লিখেছেন আব্দুর রহমান [অতিথি] (তারিখ: শুক্র, ২৫/০৩/২০১৬ - ২:৪০পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

দেখুন আমার শিরদাঁড়া নেই,
ঢুকিয়ে রেখেছি খাপে।


ছবির গল্পঃ পাণ্ডবছাউনিতে ভয়াল রাত

সত্যপীর এর ছবি
লিখেছেন সত্যপীর (তারিখ: বিষ্যুদ, ২৪/০৩/২০১৬ - ৮:৫৯পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আর ছিল দশবন্ত, পাল্কিবেয়ারার ছেলে। কারখানায় কাজ করত আর তার দেয়ালে নানান ছবি এঁকে রাখত মনের খেয়ালে। হঠাৎ একদিন মহাদর্শী বাদশার নজরে আসে এই দেয়ালের ছবি। তিনি খাজা (আব্দুস সামাদ) এর কাছে একে ছবির কাজ শিখতে পাঠান। দুদিন না যেতেই দশবন্ত তার সময়ের সবচাইতে দুর্দান্ত এবং অতুলনীয় চিত্রশিল্পী হয়ে ওঠে, কিন্তু মস্তিষ্কবিকৃতির করাল গ্রাস অসাধারন মানুষটিকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। আত্মহত্যা। কিছু অসামান্য প্রভুখন্ড সে রেখে গেছে বৈকি।

আবুল ফযল, আইন ই আকবরি।

প্রিয় পাঠক আজকের ছবির গল্প রযমনামা (অর্থাৎ যুদ্ধের গল্প) হতে উন্মাদ শিল্পী দশবন্তের এ নাইট অ্যাসল্ট অন দ্য পাণ্ডব ক্যাম্প।


রক্তচাপ! উচ্চ রক্তচাপ...

নজমুল আলবাব এর ছবি
লিখেছেন নজমুল আলবাব (তারিখ: মঙ্গল, ২২/০৩/২০১৬ - ৭:০৭পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

[justify]মেয়েটা নতুন। কুশল জিজ্ঞেস করে বল্ল, আপনার প্রেশার মাপতে হবে এখন, এরপর রক্ত পরীক্ষা করবো। এসবের জন্য ৩ ঘন্টা আগে থেকে খাবার বন্ধ রাখতে হয়, সেটা জানেন? আমি হ্যাঁ সূচক মাথা নাড়লাম। সকালের ওষুধ নিয়েছেন? বল্লাম, হ্যাঁ।


পুয়েবলো নিবাসীদের হাটে

জীবনযুদ্ধ এর ছবি
লিখেছেন জীবনযুদ্ধ [অতিথি] (তারিখ: রবি, ২০/০৩/২০১৬ - ২:৫২অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

[justify]


তাসকিন ও সানির বোলিং এ্যাকশন নিয়ে আইসিসির বিরুদ্ধে যুদ্ধ এবং কিছু প্রাসঙ্গিক আলোচনা

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী (তারিখ: রবি, ২০/০৩/২০১৬ - ১২:০৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

100x

বাংলাদেশের বিপক্ষে যাওয়া আইসিসির বিভিন্ন স্বীদ্ধান্তের ব্যপারে বাংলাদেশের সমর্থকগোষ্ঠি বরাবরই সোচ্চার এবং সেটা ন্যায়সঙ্গত কারণেই। তবুও বিষয়টা নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোডর্ তথা বিসিবি নমনীয়। যেহেতু বিসিবি একটা জাতীয় ক্রিকেট বোর্ড এবং আইসিসির সদস্য, তাই তাদের পক্ষে সরাসরি আইসিসির রিরুদ্ধে যাওয়াটা সহজ নয়। বিশেষ করে যখন কেউ একটা প্রক্রিয়ার অংশ হয়, তখন সেই প্রক্রিয়ার ভেতরে থেকেই সমস্যার মোকাবেলা করতে হয়। যদি খোদ প্রক্রিয়াতেই সমস্যা থাকে, সেটা পরিবর্তনের জন্যে ভেতরে থেকেই চেষ্টা চালানো বুদ্ধিমানের কাজ। হতে পারে সে কারণে আইসিসির বিভিন্ন সন্দেহজনক আচরণ যা আম্পায়ারিং থেকে শুরু করে ভেনু্য সিলেকশন পর্যন্ত বিসিবি নীতিগত ভাবে একমত না হলেও সরাসরি সোচ্চার হয় নি। কিন্তু তাসকিন এবং সানির বোলিং এ্যাকশন নিয়ে আইসিসি যে নূতন বিতর্ক শুরু করেছে এবং তারই ধারাবাহিকতায় আজ তাদের দুজনের বোলিং এ্যাকশন অবৈধ ঘোষণা করেছে, এ বিষয়ে বিসিবির শুধু সোচ্চার হলেই চলবে না, তাদের পদ্ধতিগত ভাবে মোকাবেলার জন্যে প্রস্তুতিও নেয়াও জরুরী। এই লেখাটায় মূলতঃ বর্তমান প্রেক্ষাপটে যা যা ঘটছে, সেটাকে অতীতের আলোয় মোকাবেলা করার জন্যে কিছু সাজেশন উল্লেখ করা হয়েছে।