রকমারি রক সিটি আর হেলানো রেললাইন

মেঘলা মানুষ এর ছবি
লিখেছেন মেঘলা মানুষ [অতিথি] (তারিখ: মঙ্গল, ০১/০৭/২০১৪ - ৬:১২অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

প্রথমেই, কিছু বিজ্ঞাপন দিয়ে নিই, তা না হলে লেখা পড়বার উৎসাহ পাবেন কোথায়? এখানে নাকি পৃথিবীর সবচেয়ে খাড়া রেলপথ আছে যেটাতে এখনও যাত্রীবহন করা হয়। (রোলার কোস্টারগুলো বাদে) এটার একটা অংশে নাকি ৭২% ঢাল আছে! এর মানে হল, আপনি ১০০ ফুট সামনে এগুলে (আনুভূমিক), আপনাকে ৭২ ফুট উপরে (উল্লম্ব) উঠতে হবে। আরও না কি আছে এক অত্যুচ্চ স্থান যেখান থেকে নাকি ৭টি রাজ্য দেখা যায়! সাথে আরও রয়েছে দৃষ্টিনন্দন মনোহর জলের ধারা।


এলেবেলে দিনপঞ্জি

নীড় সন্ধানী এর ছবি
লিখেছেন নীড় সন্ধানী (তারিখ: মঙ্গল, ০১/০৭/২০১৪ - ১:৫৭অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

রাতে ঠিকমতো ঘুম না হওয়াতেই বোধহয় বারবার হাই ওঠে। বারবার হাই ওঠা খারাপ লক্ষণ। যখন হাত এবং মগজ কোনটাতেই কাজ থাকে না তখনই হাইগুলো উঠে। হাই উঠার ঘন্টাখানেক পরই কপালের দুপাশ পিনপিন করতে শুরু করবে। পিনপিনটা মৃদু থেকে তীব্রতার দিকে যেতে যেতে সমগ্র মস্তিষ্কের নেটওয়ার্ক জুড়ে ঝিমঝিম করে বাজতে শুরু করবে। চোখের সামনে যত আলো আছে সবকিছু অসহ্য ঠেকবে। মাথাটা কোথাও ঠেকানোর জায়গা খুঁজবে। চোখটা অন্ধকারের আশ্রয় চাইবে


সচলের বাড্ডে, বাকি সব বাদ দে..

তিথীডোর এর ছবি
লিখেছেন তিথীডোর (তারিখ: মঙ্গল, ০১/০৭/২০১৪ - ১০:৫২পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

সচলের জন্মদিন ছিল আজ। মনে ছিলো না তারিখটা আসলে।

দিন-তারিখ মনে থাকেও না ইদানিং। দেশে তেল নাই, গ্যাস নাই, একটু বৃষ্টি হলেই চট্টগ্রাম শহর জুড়ে থইথই পানি-- সেসবের কোন প্রতিকার নাই, ব্যক্তিগত বেতাবেদনার সীমা- পরিসীমা নাই। প্রায় হাজার চারেক ডলারের টেনশন ঝুলছে মাথায়। কাজকাম কিছুই যেহেতু করি না, করতে ইচ্ছেও করে না... সমস্যা সমাধানের একমাত্র উপায় হলো টবে মানিপ্ল্যান্টের চারা পোঁতা।


ক্ষমা নামের সেই নদীটি

তুলিরেখা এর ছবি
লিখেছেন তুলিরেখা (তারিখ: মঙ্গল, ০১/০৭/২০১৪ - ৩:০৩পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আমার ছোট্টো নদীটা হারিয়ে গিয়েছিল। ওর নাম ছিল ক্ষমা, আমার পাথরঘরের কাছ দিয়ে কুলকুল করে বয়ে যেত ওর চঞ্চল ধারা। ও ছিল ছোট্টোবেলার প্রিয় খেলার সাথীর মতন, স্বচ্ছ, অনাবিল, যার মধ্যে নিবিড় শান্তি আর আনন্দ, যার মধ্যে নিজেকে খুঁজে পাওয়া যা্য, যার কাছে সব কথা বলা যায়। মধ্যগ্রীষ্মের প্রচন্ড বালিঝড়ে একদিন নদীটা নেই হয়ে গেল ।


ফরমালিন কি হারাম নয়?

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: সোম, ৩০/০৬/২০১৪ - ৭:৩৮অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

এই পবিত্র রামাদান মাসে এসে একটি চিন্তা আমার দিলে ঘুরপাক খাচ্ছে।

ফরমালিন কি হারাম নয়?

পানিতে ফরমালডিহাইডের দ্রবণকেই ফরমালিন বলা হয়। মমিন ভাইয়েরা ও মমিনাহ বোনেরা কি জানেন, এই ফরমালডিহাইড কিভাবে প্রস্তুত করা হয়?


মনোযোগ আকর্ষণের অপপ্রয়াস এবং ছাগলের তিন নাম্বার বাচ্চা

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: সোম, ৩০/০৬/২০১৪ - ৫:৫২অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

স্কুলে যখন পড়তাম তখন প্রায়ই দেখতাম রাস্তায় অপরিচিত এক লোক হাতে কোন লিফলেট ধরিয়ে দিচ্ছে। একবার তো বাসায় নিজের নামে খামে পোষ্ট আকারেই পেলাম। তো কি থাকত এই লিফলেটে?


জাতীয় সংসদে ডিএনএ বিল এর অনুমোদন: আমার ভাবনা

সজীব ওসমান এর ছবি
লিখেছেন সজীব ওসমান [অতিথি] (তারিখ: সোম, ৩০/০৬/২০১৪ - ১২:১৮পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

গতবছর ২ সেপ্টেম্বরে মন্ত্রীসভায় উত্থাপনের পর এবছরের ২৩ জুন 'ডিএনএ বিল-২০১৪' সংসদে অনুমতি পেল। আগামী একমাসের মধ্যে বিলটি পর্যালোচনা করে একটি প্রতিবেদন প্রদান করতে বলা হয়েছে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রনালয়কে। বিলটি কেন দরকার তার উত্তর যথার্থভাবেই দিয়েছেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ:


সবিশেষ পার্টি বিত্তান্ত

রংতুলি এর ছবি
লিখেছেন রংতুলি [অতিথি] (তারিখ: রবি, ২৯/০৬/২০১৪ - ৬:১৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

“কিন্তু স্যার... পানি লাগবে কেন?”

আহসানের ছুঁচো প্রশ্নে মিঃ জামশেদের ভ্রু কুঁচকে আসে। পঞ্চাশোর্ধ বলিরেখায় চাপ পড়ে। চোখে-মুখে তাচ্ছিল্যের ভাব ফুটে ওঠে। এবং এসব কিছুর পরোয়া না করেই সে তাকায় আহসানের দিকে।


হিমালয়ের কোলে- ল্যাংটাং ভ্যালি ট্রেক

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: রবি, ২৯/০৬/২০১৪ - ৪:৫৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ল্যাংটাং ভ্যালি নেপাল তিব্বত সীমান্তে জনপ্রিয় ট্রেকিং রুট। এ পথে রয়েছে বেশ কটি চমৎকার ট্রেকিং ডেষ্টিনেশন, যেমন ৩৫০০ মিটার উচ্চতায় ল্যাংটাং ভিলেজ, প্রায় ৪০০০ মিটার উচ্চতায় চারিদিকে বরফের রাজ্য নিয়ে চমৎকার পাহাড়ি বসতি কিয়ানজিন গোম্পা, আছে গোসাইকুন্ড নামে্র হাই আলটিচ্যুড লেক। এছাড়াও আছে জনপ্রিয় ট্রেকিং পিক কিয়ানজিন রি, সেরগো রি, ইয়ালা পিক সহ বেশ কিছু ট্রেকিং পিক যেখানে কোন রকম টেকনিক্যাল ক্লাইম্বিং ছ


আইন কানুন

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: শনি, ২৮/০৬/২০১৪ - ১১:৪৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

শিব ঠাকুরের আপন দেশে
আইন কানুন সর্বনেশে
কেউ যদি যায় পিছলে পড়ে
প্যায়দা এসে পাকড়ে ধরে
কাজির কাছে হয় বিচার
..... একুশ টাকা দন্ড তার

এই দেশটা শিব ঠাকুরের না হলেও এখানকার আইন কানুনও সর্বনেশে। সুকুমার রায় বহু আগে এই কবিতা লিখেছিলেন কিন্তু এতদিন পর ইংল্যান্ডে এসে আমি এই কবিতার সার্থকতা খুঁজে পেলাম। তেমনই কিছু মজার সর্বনাশা ঘটনা বর্ণনা করব এই লেখায়।